Quantcast
Ads by Techtunes - tAds

নতুন প্রিন্টার কেনার আগে প্রিন্টারের রোগব্যাধি এবং ঔষধ সম্পর্কে ধারণা নিন [সকল প্রিন্টারের ড্রাইভার ইন্সটলেশন সমস্যা এবং এপসন ইঙ্কজেট প্রিন্টার (CISS সহ) এর ইঙ্ক লেভেল সমস্যার সচিত্র ও বিস্তারিত সমাধান ,২৫০০ শব্দের মেগাটিউন]

159 টিউমেন্টস 16,440 দেখা 388 প্রিয়

আশা করি সবাই ভাল আছেন? আজ আমি প্রিন্টারের কিছু সমস্যা এবং তার সমাধান নিয়ে এসেছি। প্রিন্টার কেনার আগে অনেকের অনেক রকম প্ল্যানিং থাকে যে সে কোন ধরণের কাজ(প্রিন্ট) প্রিন্টার দ্বারা করাতে চাচ্ছেন। যারা এব্যপারে আমার মত অজ্ঞ, তাঁরা প্রিন্টার কিনে বাসায় আনার পর কোথায় শান্তিমত প্রিন্ট করবেন তা না, অনেক সমস্যার সমাধান করে তারপর প্রিন্ট করা লাগে। অনেকের এক্সপার্ট লোকজনের সাথে চেনাজানা না থাকলে সমস্যা হয় আরও প্রকট। সেকারণে আমি আজ এই পোস্টে দেখাব যে Epson Inkjet (CISS সহ) প্রিন্টার এর কত ধরণের সমস্যার সম্মুখীন আমাকে হতে হয়েছিল এবং সেসব সমস্যার সমাধান কী ছিল যাতে করে যারা নতুন প্রিন্টার কিনবেন তাঁরা একটু সাবধান হতে পারেন এবং এই ধরণের সমস্যা সম্পর্কে অবগত থাকতে পারেন। তাহলে শুরু করা যাক, কী ধরণের সমস্যার মুখোমুখি আমি হয়েছিলাম।

আগে জানা যাক CISS কাকে বলে,

CISS:

CISS হল Continuous ink supply system এর সংক্ষিপ্ত রূপ। এটা নানা সংক্ষিপ্ত রূপে পরিচিত। যেমন: CIS (continuous ink system), continuous flow system (CFS)automatic ink refill system (AIRS), bulk feed ink system, off-axis ink delivery system ইত্যাদি। সবগুলোই একটি জিনিসকে নির্দেশ করে। বিভিন্ন জায়গায় ড্রাম হিসেবেও পরিচিত।

প্রিন্টার কেনা:

প্রিন্টার কিনতে দোকানে গেলাম। একটা পছন্দ হয়ে গেল, মডেল হল Epson Stylus Inkjet T13 । CISS এর কথা বললে দোকানদার বলেন যে CISS নিলে নাকি প্রিন্টারের Warranty Void/ Invalid হয়ে যাবে। হোক তাতে কী?! Warranty ধুয়ে পানি খাব নাকি? Warranty তে তো আমাকে নতুন প্রিন্টার কিংবা যন্ত্রাংশ দিবে না; আর CISS অনেক সস্তা। অতদাম দিয়ে বারবার কার্ট্রিজ কিনতে গেলে আমার বাপ-দাদা চৌদ্দগুষ্টি ফতুর হয়ে যাবে। তারচেয়ে CISS লাগানো অনেক ভাল। দোকানদারকে দিয়ে CISS লাগিয়ে নিলাম; উনি ফ্রিতে লাগিয়ে দিলে আমি শুধু শুধু কষ্ট করতে যাব কেন? (আসলে এইসব কাজে ভয় পাই  8)  ) যাই হোক, প্রিন্টার কিনতে ৪০০০/-৳ এবং CISS এর দাম পড়ল ৯০০/-৳ । বাকি ১০০/-৳ দিয়ে বাসায় এসে পড়লাম।

সমস্যার শুরু (চালক নিযুক্তকরণ সমস্যা): [সবধরণের প্রিন্টারে হতে পারে এবং সমাধান সকল প্রিন্টারের ক্ষেত্রে একই ]

আসার সময় নানা ধরণের রঙ্গিন চিন্তাভাবনা করতে করতে এলাম। এটা প্রিন্ট করব, ঐটা প্রিন্ট করব;ভাবনা আর ফুরাইতেই চায় না। তারপর বাসায় এসে প্রিন্টার সেট করে কম্পুটার চালু করি।

এরপর প্রিন্টারের বাক্স ভালভাবে ঘাটাঘাটি করে একটা সিডি পেলাম। স্বভাবতই প্রিন্টারের সাথে দেওয়া সিডিটা ডিভিডি রমে ঢুকিয়ে ইন্সটল করা শুরু করি।

ইন্সটল শুরু হল, ভাবলাম সময় লাগবে কিছু তাই একটু ঘুরে আসি। ঘুরে আসার পর দেখলাম; হুম ইন্সটল হয়েছে।

এরপর দেখি ড্রাইভার নোটিফিকেশন আসল। ক্লিক করলাম। বলে Automatic Driver ইন্সটল করব নাকি ম্যানুয়ালি সিলেক্ট করব? অটোমেটিক সিস্টেম থাকতে আবার ম্যানুয়ালি কেন? দিলাম Automatic এরপর নেক্সট দিলাম। কিছুক্ষণ ছুমন্তর(কিছু কাগজ পত্র উড়ে অন্য ফাইলে যাওয়া 😛 ) করার পর হঠাৎ বলে:

অর্থাৎ RPC নামক দাগী আসামীকে পাওয়া যাচ্ছে না! 😡

মেজাজ খ্রাপ হয়ে গেল, ফিনিশ দিলাম তারপরও।

এরপর আবার আমাকে হুমকি দেয় এই কথা বলেঃ

অর্থাৎ মশাইয়ের মেমরি লস হয়েছে, ( সফটওয়্যার এর ও অ্যামনেসিয়া আছে দেখা যায় 😛 ) । নতুন করে ইন্সটল করতে বলে। আমিতো প্রিন্টারের বান্দা চাকর! ইচ্ছামত মেমরি লস হবে উনার আর মেমরি ঠিক করতে হবে আমার! ইচ্ছা করেছিল বাংলা ছিঃনেমার মত চিপিউ অথবা প্রিন্টারকে একটা ভালমত উত্তম-মধ্যম দিয়ে হারানো স্মৃতি ফিরিয়ে আনি।

সেটা শুধু সিনেমাতেই সম্ভব বলে বাস্তবে আর খাটাতে গেলাম না।

শুরু করলাম গুগলিং, উল্টাপাল্টা যত্তসব জিনিস নিয়া হাজির হচ্ছে; বলি Epson Inkjet T13 driver installation problem , গুগল মিয়া উত্তর দেয় Driver Update ; মেজাজ অষ্টমে চড়ে গেল। ঢুকলাম হাউটুগিকে এ গিয়ে একই কথা বলার পর যাইহোক একটা উত্তর পেলাম। সেটা মনঃপূত না হওয়াতে সমস্যার মেইল দিলাম মিনহাজুল হক শাওন ভাইকে; দেখি উনিও একই সমাধান দিলেন। এরপর সেটা অ্যাপ্লাই করে কম্পুটার রিস্টার্ট করলাম। বাঃ , চমৎকারভাবে চালক নিযুক্ত করা গেল অর্থাৎ কিনা ড্রাইভার ইন্সটল হয়ে গেল। 😀

চলুন তাহলে দেখি, শাওন ভাইয়ের ইমেইলে এবং HTG তে কী এমন উপায় ছিল যাতে আমার সমস্যার সমাধান হয়ে গেল?

ড্রাইভার ইন্সটলেশন সমস্যার সমাধানঃ

➡ ধাপ:১

  • [উইন্ডোজ বাটন] এবং [R ]বাটন একসাথে চেপে Run ওপেন করুন। তাহলে এটা ওপেন হবে:

➡ ধাপ:২

  • Run এর ডায়লগ বক্সে services.msc লিখে ওকে দিন। (না বুঝলে Run ছবির মধ্যে দেওয়া আছে সেটা হুবহু লিখুন)। এবার দেখুন নিচের মত একটা উইন্ডো ওপেন হয়েছে:

➡ ধাপ: ৩

  • ডানপাশে অর্থাৎ নিচের ছবির মত জায়গায় Name কলামের নিচে খুঁজুন Print Spooler। এটা A,B,C…এইভাবে সাজানো আছে। আপনি P তে খুঁজলেই পাবেন।

➡ ধাপ: ৪

  • খুঁজে পেয়েছেন? তাহলে ওটার উপ্রে রাইট ক্লিক করে Properties এ ক্লিক করুন।

➡ ধাপ: ৫

  • প্রপার্টিজ এ ক্লিক করলে নিচের মত একটি উইন্ডো ওপেন হবে, সেইটার Recovery ট্যাবে ক্লিক করুন:

➡ ধাপ: ৬ (সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ)

  • যে তিনটি ট্যাব ছবিতে আলাদা বক্সে দেখানো হল সেগুলোতে যা-ই লেখা থাকুক না কেন, আপনি তা পরিবর্তন করে তিনটি  ড্রপ ডাউন বক্সের ক্ষেত্রে Restart the Service সিলেক্ট করুন।

এর ঠিক নিচের দুইটি বাক্সে 1 দেওয়া আছে কিনা তা লক্ষ্য করুন। যদি না দেওয়া থাকে তাহলে দুটি বক্সে 1 লিখে অ্যাপ্লাই এবং পরে ok দিয়ে বের হয়ে আসুন।

এবার আপনি ড্রাইভার রি-ইন্সটল করুন এবং দেখুন কোন সমস্যা ছাড়াই ড্রাইভার ইন্সটল হচ্ছে এবং কম্পুটার প্রিন্টারকে চিনে ফেলেছে। :mrgreen:

সমস্যা: ২ (নকল জিনিস দিয়া কাজ করি না!!) [শুধু Epson Inkjet প্রিন্টার (CISS সহ )এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য]:

ড্রাইভার ইন্সটল করার পর মনের আনন্দে প্রিন্ট করা শুরু করে দিলাম; ৩০টার মত প্রিন্ট করে আপাতত সেই দিনের জন্য ইস্তফা দিলাম।

পরদিন সকালে উঠে ভাবলাম আজকে আরও কিছু প্রিন্ট করি। যেই ভাবা সেই কাজ। প্রিন্ট করতে দিয়ে আমি একটু ঘুরে আসলাম। এসে আমার চক্ষু ছানাবড়া!! প্রিন্টার কয় ও নাকি কার্ট্রিজ চিনেনা, 😮 একটা কাগজের ঠিক অর্ধেক পরিমাণ প্রিন্ট করে হঠাৎ বলে কার্ট্রিজ চিনেনা, কেমন লাগে বলেনত? দেখুন তাহলে:

আরে CISS না হয় নকল(ছাইনিজ), কিন্তু কার্ট্রিজতো অর্জিনাল কিন্সি। 🙁 , যেহেতু কার্ট্রিজ চিনতে পারছে না তাই দোকানদারকে ফোন করে একটু ঝাড়লাম। দোকানদার কয় এমন নাকি হওয়ার কথা না; উপদেশ দিল CISS টা এট্টু উচা কইরা ধরতে যাতে ইঙ্ক ফ্লো ঠিকমত হয়। কিন্তু এমন কাজ আপনারা স্বপ্নের মধ্যেও করবেন না সাবধান!! এই কুপরামর্শ শাওন ভাইও আমাকে দিয়েছিলেন। 😡 CISS আর প্রিন্টার একই সমতলে রাখতে হয়। এদিক ওদিক হলে কিন্তু আপনার সাধের প্রিন্টার নষ্ট হয়ে যেতে পারে। নয়শো টাকার CISS কে একটু বেশি গুরুত্ব দিতে গিয়ে সাড়ে চার হাজার টাকার প্রিন্টার নষ্ট করবেন না। পরে ঐ দোকানের মালিকের সাথে কথা বলে জানতে পারি একজন লোক CISS কে উঁচু তাকে রেখেছিলেন এবং প্রিন্টারকে নিচে রেখেছিলেন। এতে CISS এর কালি প্রিন্টারের ভিতরে পরে প্রিন্টার তৎক্ষণাৎ নষ্ট হয়ে যায়। তাই, একবার বললাম; দরকার হলে আরও অনেকবার বলব: CISS সহ প্রিন্টার কিনলে মনে রাখবেন CISS সর্বদা প্রিন্টারের একই সমতল বরাবর রাখতে হবে। প্রিন্টারকেও উচুতে রাখবেন না এবং CISS কেও উচুতে রাখবেন না। দুইটার মর্যাদাই সমান।

কিন্তু প্রিন্টার বাবাজি যে তার কার্ট্রিজ চিনতে পারছে না তার কি হবে? 🙁   😕

সকল CISS ওয়ালা প্রিন্টারের জন্য সবচেয়ে সহজ উপায়:

আপনার প্রিন্টারের মেইনটেনেন্স বাটনটি চেপে কার্ট্রিজের এমন অবস্থানে আনুন যাতে কার্ট্রিজের উপরের সুইচটি টিপ দেওয়া যায়। তারপর সুইচটি ৫-৬ সেকেন্ড টিপে ধরুন এবং আবার মেইনটেনেন্স বাটনটি চাপুন। তাহলে ইঙ্ক রিসেট হয়ে যাবে। এই পদ্ধতি উইন্ডোজ ,লিনাক্স সব অপারেটিং সিস্টেমের জন্য প্রযোজ্য।

সমাধান:  [আগের পদ্ধতি কাজ না করলে বিকল্প উপায়]

[দ্রষ্টব্য: আমি এটার সমাধানের জন্য সারা ইন্টারনেট ঘেঁটেছি, একে জিজ্ঞাসা করেছি, ওকে জিজ্ঞাসা করেছি কিন্তু সমাধান পাই নি।]

➡ ধাপ: ১

  • প্রথমে আপনাকে প্রিন্টিং প্রেফারেন্সে যেতে হবে। এখানে দুইভাবে যাওয়া যায়। দুইটা পদ্ধতি দিলাম। আপনার যেটা ইচ্ছা হয় সেই পদ্ধতিতে যাবেন।

ক) কন্ট্রোল প্যানেল থেকে

খ) কোন কিছু প্রিন্ট করা থেকে

উপধাপ: i (ডেস্টিনেশন প্রিন্টিং প্রেফারেন্স ফ্রম কন্ট্রোল প্যানেল)

  • প্রথমে স্টার্ট থেকে কন্ট্রোল প্যানেল ওপেন করুন (এটা কোথায় সেটা আবার জিজ্ঞাসা করবেন না 😛 )

  • যদি আপনার কন্ট্রোল প্যানেলের ভিউ নিচের ছবির মত হয় তাহলে Printers and other Hardware এ যান:

  • যদি আপনার ভিউ উপরের ছবির মত না হয়ে নিচের ছবির মত হয় তাহলে Printers and Faxes এ যান:

  • ভিতরে ঢুকলে আপনি প্রিন্টারের আইকন দেখতে পাবেন যেই আইকনে আপনার প্রিন্টারের নাম থাকবে ঐটার উপর রাইট ক্লিক করে প্রিন্টিং প্রেফারেন্সে যান:

  • এবার তাহলে এরকম একটি উইন্ডো দেখবেন:

এই উইন্ডো আবার আরেকভাবে ওপেন করা যায়। দেখুন তাহলে।

উপধাপ: ii

  • যেকোন একটা ডকুমেন্ট ওপেন করুন, যেটা pdf, doc, docx, odt ইত্যাদি হতে পারে। সেটার প্রিন্ট অপশনে যান:

  • এবার দেখুন এরকম একটা উইন্ডো ওপেন হবে, সেটার Properties এ যান:
  • এরকম একটি উইন্ডো ওপেন হবে:

এভাবে আপনি প্রিন্টিং প্রেফারেন্সে যেতে পারেন। উপধাপ আপাতত শেষ। এবার চলুন কিভাবে কিভাবে প্রিন্টারকে কার্ট্রিজ চিনিয়ে ছাড়বেন। হুহ!!

➡ ধাপ: ২

  • উপরের উইন্ডো এর Maintenance ট্যাবে ক্লিক করুন:

➡ ধাপ: ৩

আপনার প্রিন্টারের পাওয়ার দিয়ে প্রিন্টার অন করুন এবং কম্পুটারের সাথে ইউএসবি কেবল দিয়ে ইউএসবি পোর্ট কানেক্ট করুন।

  • এখান থেকে Ink Cartridge Replacement এর একটি বাটন দেখবেন, সেইখানে ক্লিক করুন:

➡ ধাপ:৪ [এই ধাপ এবং এরপরের ধাপগুলোতে প্রিন্টারের পাওয়ার যেন অফ না হয়,আর যদি লোডশেডিং কিংবা অন্য কোন কারণে প্রিন্টারের পাওয়ার চলে যায় তাহলে কম্পিউটার রিস্টার্ট দিয়ে ধাপ ১ থেকে কাজগুলো পুনরায় করতে হবে]

  • নিচের মত একটি উইন্ডো আসলে সেটাতে OK ক্লিক করুন।

তাহলে প্রিন্টারের উপ্রের ঢাকনা খুলে দেখবেন প্রিন্টারের কার্ট্রিজ এই অবস্থানে এসেছে:

➡ ধাপ: ৫

  • নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন:

➡ ধাপ: ৬

  • আবার নেক্সট  বাটনে ক্লিক করুন। [একাধারে সব নেক্সট দিয়েন না]

➡ ধাপ: ৭

  • আবারো নেক্সট চাপুন:

➡ ধাপ: ৮

  • আগেরটায় নেক্সট দিলে নিচের মত একটি উইন্ডো ওপেন হয়। খবরদার! নেক্সট চাপবেন না।


এবার আপনার কার্ট্রিজটা ক্লিপ উঠিয়ে ধীরে ধীরে খুলে ফেলুনবেশি বল প্রয়োগ না করাই ভাল। প্রিন্টার নতুন হলে আর দোকানদার গাট্টা-গোট্টা হলে একটু শক্তি প্রয়োগ করে কার্ট্রিজ খুলে ফেলুন। সাবধান, আপনার কম্পুটার যেভাবে একটা একটা করে খুলতে বলছে সেভাবে খুলবেন না। ক্লিপগুলো উঠিয়ে সম্পূর্ণ কার্ট্রিজটাই উঠিয়ে আনুন। নিচের ছবি দেখুন:

  • এবার নেক্সট চাপুন:

➡ ধাপ: ৯

  • এবারও নেক্সট চাপুন [হ্যাঁ, কার্ট্রিজ খুলে রাখা অবস্থায়]

➡  ধাপ: ১০

  • এবার দেখুন নিচের উইন্ডো এসেছে, দাঁড়ান! নেক্সট চাপবেন না!

  • নেক্সট চাপার আগে এবার ঝটপট সুবোধ বালক\বালিকার মত কার্ট্রিজ যেভাবে খুলেছিলেন সেভাবেই লাগিয়ে ফেলুন:

কার্ট্রিজ লাগানোর জন্য প্রথমে কার্ট্রিজকে নিজ স্থানে সেট করুন, তারপর ছবির মত করে যেই কয়টা কার্ট্রিজ আছে সেই কয়টা আঙ্গুল ব্যবহার করে হাল্কা চাপ দিন। কট করে আওয়াজ হলে এবং ক্লিপগুলো লেগে গেলে বুঝবেন কার্ট্রিজ ঠিকভাবে স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন।

➡ ধাপ: ১০

  • এবার আগের উইন্ডোতে নেক্সট চাপুন তাহলে দেখবেন নিচের মত একটি উইন্ডো ওপেন হয়েছে। সেটার Finish বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে উইন্ডো ক্লোজ হয়ে যাবে।

➡ ধাপ: ১১

  • উঁহু, এত আলসেমি করলে হবে না, আরেকটু কাজ বাকি আছে বৈকি। আপনার Epson প্রিন্টারের মেইন্টেনেন্স বাটনে চাপ দিন। এটা কম্পুটারে নাই, প্রিন্টারের বাটন! নিচের ছবি দেখুন:

➡ ধাপ: ১২

যদি সব কাজ ঠিকঠাক হয়ে থাকে তাহলে এবার আপনার প্রিন্টারের কার্ট্রিজটি নিজের মগজ ধোলাই কিংবা মস্তিষ্ক প্রক্ষালন অথবা Head Cleaning যাই বলুন না কেন সেটা করতে যাবে। নিচের ছবিতে দেখুন আমার প্রিন্টারের কার্ট্রিজের মগজ ধোলাই হচ্ছে!

যদি Head Cleaning না শুরু হয় তাহলে আবার ১ম ধাপ থেকে একই কাজ করতে থাকুন কিন্তু কার্ট্রিজ খোলা এবং লাগানোর ক্ষেত্রে একটু মনযোগী হন। এইভাবে আমি ২০ বারের মত ইঙ্ক লেভেল ফুল- এ এনেছি। কাজ না করার কোনই কারণ নাই।

➡ ধাপ: ১৩

  • এবার আপনার প্রিন্টারের ঐ Properties উইন্ডোতে গিয়ে ইঙ্ক লেভেল চেক করুন:

বিশ্বাস হচ্ছে না?

  • আচ্ছা!? এবার Properties এর Maintenace ট্যাবে গিয়ে Epson Status Monitor এ ক্লিক করুন, তাহলে দেখুন নিচের মত ছবি আসছে:

নাহ, তাও আসছে না? হেড ক্লিনিং হয়েছে কিন্তু তারপরও নিচের মত ছবি দেখাচ্ছে?

আপনাকে তাহলে আসলেই কিছু বলার নেই। প্রিন্টারের পাওয়ার অন আছে কিনা এবং ইউএসবি কানেক্ট করা আছে কিনা সেটা আগে দেখুন! তারপর ইঙ্ক লেভেল চেক করুন!

CISS সহ Epson Inkjet printer কিনলে আপনি কী কী সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন এবং তার সমাধান আপাতত এটাই। হ্যাপি প্রিন্টিং  :D।

সব ভুয়া কিচ্ছু বিশ্বাস করি না :

বিশ্বাস না করলে আমার কিছু করার নেই। আমি ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট ১০০০+ পেজের মত প্রিন্ট করেছি এবং কালার পেজ ৭০-৮০ টার মত প্রিন্ট করেছি, বারংবার একই পদ্ধতি অনুসরণ করে। অর্থাৎ, যখন আমার প্রিন্টার আমার কার্ট্রিজ চিনেনা তখনই এই পদ্ধতি অনুসরণ করি এবং ইঙ্ক লেভেল ফুল হওয়ার পরেই প্রিন্ট করতে থাকি। এখনো পর্যন্ত অন্য ধরণের সমস্যা দেখা দেয় নি। আমার CISS এর অবস্থা দেখলেই বুঝবেন আমার কথা সত্যি নাকি মিথ্যা:

ক্যামেরা ভাল না, বামপাশেরটার লেভেল অনেক নিচুতে গিয়েছে; তাই এটাই হল কাল কালির লেভেল। 😛

এবার আসি প্রিন্টারের প্রয়োজনীয় জিনিসপাতির দরদামে:

কাগজ:

এটা ছাড়া প্রিন্টিং অসম্ভব! তাই এটার প্রতি একটু বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। যাদের টাকার পরিমাণ বেশি তাঁরা Double A কিনতে পারেন। লোকাল ৫০০ কাগজ ৪৫০/-৳ [ব্যাটারা ডাকাইত! পাইকারী দোকান থেকে আরও অনেক কমে কিনতে পারেন]

অথবা, বসুন্ধরা অফসেট কাগজ কিনতে পারেন, আমি এটাই ব্যবহার করি। সাধারণ প্রিন্টিং কিংবা ফটোকপির জন্য এটা আদর্শ। পাইকারী দোকান থেকে ৫০০ কাগজ কিনি মাত্র ২৬৫/-৳ দিয়ে। কাগজের মান ভালৈ। 😀

CISS এর রিফিল:

এর রিফিল পাওয়া যায়। আপনার যেই রঙয়ের কালি বেশি ব্যবহৃত হচ্ছে আপনি ইচ্ছা করলে সেটার রিফিল কিনতে পারেন। দাম মাত্র ৯০/-৳ । আমার কাল কালির অবস্থা খারাপ বিধায় একটা রিফিল কিনে রেখেছি। CISS এর কাল কালি শেষ হওয়ার একটু আগেই ফিলাপ করব। 😀 ।

CISS এর দাম:

আগেই বলেছি, পুরো সেট CISS ৯০০ টাকা, যদি ৪টা কার্ট্রিজ হয়। রঙ বাড়লে কার্ট্রিজের সংখ্যা বাড়বে সেইসাথে CISS এর দামেরও হেরফের হবে।

প্রিন্টারের দাম:

Epson Inkjet সিরিজের প্রিন্টারগুলো ৩৮০০ থেকে শুরু হয়। দরদাম আমার ঠিক খেয়াল নাই। কেউ জানলে কমেন্টে বলার অনুরোধ রইল।

CISS ব্যবহার করা কী ভাল?

অবশ্যই ভাল! এতে আপনার প্রচুর অর্থের সাশ্রয় হবে। এটা আপনি প্রোফেশনাল কাজেও ব্যবহার করতে পারবেন। ২০০৫-৬ সালে এতকিছু জানতাম না;  তখন কেউ রঙ্গিন প্রিন্ট করার কথা কইলে ঘরের থিকা বাইর কৈরা দিতাম।  😛  এখন কেউ একটা প্রিন্ট করতে চাইলে আরও পাঁচটা প্রিন্ট করে দিয়ে হিরু সাজি। যাই হোক, কার্ট্রিজের দামের সাথে কিছু টাকা যোগ করলেই নতুন প্রিন্টার পাওয়া যেত। আর রিফিলের কথা কী বলব?! পশু চিকিৎসকের কাছে  যেই ধরণের সিরিঞ্জ থাকে সেই ধরণের সিরিঞ্জ দিয়ে কালি ভরা লাগত। উফফ, কী যে যন্ত্রণা! হাতে পায়ে কালি লেগে একাকার। বাসায় Lexmark এর দুইটা ডট প্রিন্টার আছে আর ১৯৯৯ সালের ক্যানন বাবলজেট প্রিন্টারও আছে। প্রিন্টার নিয়ে আমার স্মৃতিগুলো অতটা সুখের নয়। এখন অবশ্য CISS এর কল্যাণে নানাভাবে  উপকৃত হয়েছি।

কোনটা কিনবেন সেটা আমার বলার অধিকার নেই। টাকা আপনার চয়েসও আপনার।

প্রিন্টার নিয়ে ম্যালা বকবক করলাম। এবার কাজের কথায় আসি:

প্রিন্টার সুস্থ সবল রাখার প্রয়োজনীয় কিছু টিপস [কমন পড়লে পরীক্ষা ভাল হয় 😛 ]

  • প্রিন্টারকে আদর দিয়ে বাঁদর বানাবেন না। অন্তত প্রতিদিন একটি করে ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট এবং সপ্তাহে একটি হাই কোয়ালিটি কালারফুল প্রিন্ট করুন। [প্রিন্ট করার কিছু না পেলে নিজের নাম বড় করে লিখে প্রিন্ট করুন  8)  ]
  • CISS আর প্রিন্টারকে একই সমতলে রাখুন।
  • CISS দিয়ে প্রিন্ট করার সময় অবশ্যই লাটিমের মত ঐ ছিপিগুলো খুলে নিবেন। প্রিন্ট শেষে আবার লাগিয়ে নিবেন; যাতে ধুলাবালি না ঢোকে।
  • প্রিন্টার চালু এবং বন্ধ করার জন্য প্রিন্টারের পাওয়ার সুইচ ব্যবহার করুন। ডিরেক্টলি পাওয়ার ক্যাবল খুলে বন্ধ করবেন না, এতে প্রিন্টারের ক্ষতি হয়
  • প্রথম প্রথম প্রিন্টার মেইনটেইন করা অনেক কষ্টের ব্যপার। যদি আপনি আপনার প্রিন্টারের মতিগতি বুঝতে পারেন তাহলে কোন সমস্যাই হবে না।

সম্পূর্ণ লেখাটি এখান থেকে ডাউনলোড করুন (আব্দুল মালেক ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ)

প্রিন্টার সম্পর্কিত অন্যান্য টিউনের লিঙ্ক:

আমার অন্যান্য টিউন:

দ্রষ্টব্য: আমি কোন প্রিন্টার স্পেশালিস্ট নই। অতএব প্রিন্টার বিষয়ক আমার টিউনের বহির্ভুত কোন কিছু জিজ্ঞাসা করলে উত্তর নাও পেতে পারেন। প্রিন্টার নিয়ে সমস্যা থাকলে আমাদের সবার প্রিয় টিউনার ‘নেট মাস্টার’ এর সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ রইল।

অফটপিক:

নতুন বছরের পুরনো উপহার:

টেকটিউন্সে ব্যবহারযোগ্য কিছু ইমো:

কিভাবে আপনার গ্র্যাভাটার বা প্রোফাইল পিক যুক্ত করবেন?

অনেক স্প্যামার আছেন যারা নিজের ব্লগসাইটের লিঙ্ক দিয়ে বেড়ান এবং শুধুশুধু অন্যের বিরাগভাজন হন। তাঁদেরকে বলছি, নিজের ব্লগসাইটের চেয়ে আপনি যদি গ্র্যাভাটার সেট করার এই লিঙ্কটি অন্তত দিতে থাকেন; অনেকেই উপকৃত হবেন। দিহান ভাইয়ের এই চমৎকার টিউনের মাধ্যমে আপনি আপনার প্রোফাইল পিক অ্যাড করতে সক্ষম হবেন।

অর্থাৎ, এইখানে নিজের পছন্দমত ছবি কীভাবে অ্যাড করবেন সেটা জানতে এই টিউন দেখুন

আমার টিউন পড়ার জন্য সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভাল লাগলে/ খারাপ লাগলে কমেন্টের মাধ্যমে জানিয়েন। সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন সেই শুভকামনা আমার পক্ষ থেকে থাকল।। 😀

Ads by Techtunes - tAds
টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

wow !! জাটিল টিউন ।

প্রিয়তে………

পুরা ধামাকা টিউন! CISS প্রিন্টারের সকল সমস্যার সমাধান হয়ে গেল দেখি! 😀
এই টিউন প্রকাশ পাবার পর বাজারে CISS প্রিন্টারের সংকট দেখা দিতে পারে। 😀

    @নেট মাস্টার: হে হে 😀
    নেট মাস্টার ভাই, আপনি এখানে কমেন্ট করে অনেক বড় ভুল করে ফেললেন… মু হু হা হা হা 😈
    সবাই এবার কমেন্ট দিয়ে আপনার কাছে হেল্প চেয়ে অতিষ্ঠ করে ফেলবে। 😀

    হুম, আপনার বুলেট টিউন যেমন লেক্সমার্কের লভ্যাংশ অর্জনে সহায়তা করেছে আমরটা পারবে কিনা সিউর না। যদি CISS প্রিন্টারের সংকট দেখা দেয়, চলেন আপনি আর আমি দোকানদারদের থিকা চান্দা তুলি?!!!! 😛 :mrgreen:

    কমেন্টের জন্য ১০ বিঘা ক্ষেতের ধইন্ন্যা দিলাম। ধইন্ন্যা পাতা দিয়ে এই শীতকাল ভালমতই চালাতে পারবেন আশা করি। 😀

    @নেট মাস্টার: সাইবার ডনকে দেওয়া বুদ্ধিটা ভালৈ। 😀
    তবে তাঁর সমস্যার সমাধান ঝাকাঝাকিতেই ঠিক হয়ে গিয়েছে। :mrgreen: 🙂

হুম……
“কিংডম অফ নিয়োফাইট” থেকে আরেকটি মেগাটিউন।
প্রিন্টার মালিকদের জন্য অবশ্যপঠিতব্য। 😀

প্রিয়তে যোগ করলাম।
সেইসাথে ধন্যবাদ তো থাকছেই 🙂

    @আরাফাত বিন সুলতান: হুম……
    আমার মত বিবেকহীন মানুষের জন্য আপনার টিউন অবশ্য পঠিতব্য, প্রিয়তে যোগ করি সবসময়।

    আমার টিউন প্রিয়তে নেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। 😀
    আর সেইসাথে স্বাগতম। 🙂

      @নিওফাইটের রাজ্যে: হলে আমার পাশের রুমের একজন প্রিন্টিং বিজনেস করে। ভাবতেছি তোমার এই টিউন কাজে লাগিয়ে ওর বিজনেসে লালবাত্তি জ্বালাইয়া দিব কিনা 😛

      প্রিন্টারের ক্ষেত্রে আমার মতে বার বার কালি রিফিল করাই সবচেয়ে বিরক্তিকর। তোমার টিউনে তার সমাধান তো রয়েছেই 🙂

      এখন তুমি যদি অনুমতি দাও, তবে লালবাতি জ্বালানোর বিষয়টা ভেবে দেখতে পারি 😛

      (অবশ্য লালবাতি না হলেও হলুদ বাতি জ্বলবে কনফার্ম) 😉

    @আরাফাত বিন সুলতান: ভাই যারা কম্পুটার কম্পোজ আর প্রিন্টিং এর ব্যবসা করে ওরা এক নাম্বারের ডাকাইত। দেখেন, ওরা কাগজ দেয় বসুন্ধরা, একটা পেজের দাম পড়ে প্রায় ৫০ পয়সা। একটা রিফিল ১০০ গ্রাম ৯০ টাকা। কালি আর কত লাগে একটা পেজ প্রিন্ট করতে? যেখানে ১০০০ পেজ প্রিন্ট করে আমার CISS মাত্র হাফ এ নেমে এসেছে সেখানে ওরা কমপক্ষে ৫ টাকা নেয় পার পেজ। কালার হলে তো নিম্নে ১০ টাকা।
    CISS এ কালার আর কালো বলে কিছু নেই। সবার দাম সমান।
    CISS এ রিফিল কোন ব্যপার না। অনেক সহজ, আর হ্যাঁ প্রিন্টারে প্রোগ্রামারেরা মনে হয় প্রোগ্রাম করে রেখেছেন যে এই কয়টা প্রিন্ট করে কালি শেষ দেখাবি 😛 । সেই জন্যেই আমার ইঙ্ক রিসেট এর ব্যবস্থা।
    ব্যবসায় লালবাত্তি এইভাবে না জ্বালাইয়া, ভাল ভাল মূল্যবান ইবুক প্রিন্ট করে বেচতে পারেন। বিভিন্ন সফটওয়্যার দিয়ে লেখা কম্প্যাক্ট করার ব্যবস্থা আছে।
    তবে এটা ঠিক চ্রম ব্যবসা করতে পারবেন। 😀
    ভাল থাকুন। 🙂

PRIOTE SOJAAAAAAAAAAAAAAAA
VAI ++++++++++++++++++++++++

🙁 মেগা টিউন হইলো এইটা? 🙂 🙂 🙂 😉 টেরাবাইট টিউন প্রিয়তে রাখার মত। বোঝা যাচ্ছে অনেক সময় নিয়ে টিউনটি লিখেছো। চালিয়ে যাত্ত। সামনে এই ধরণের বিশেষ বিশেষ টিউনগুলো চাই সকল টিকটিউনস এর জন্য 🙂

    @swordfish: নারে ভাই, সময় পাই নাই। গত দুইদিন যাবত চরম পর্যায়ের লোডশেডিং হইতাসে। স্ক্রিনশট অনেক আগেই তুইল্ল্যা রাখসি। লেপ্পুর ব্যাকাপ যতক্ষণ ততক্ষণে টিউন গতকাল বানাইসি। আজকে সকালে ইমেজ আপলোড দিয়ে এখন টিউন জমা দিলাম।
    কমেন্টের জন্য ধন্যবাদ। 🙂

খুব ভালো টিউন। প্রিয়তে নিলাম।

আমিও CISS করে প্রিন্টার চালাচ্ছি। এতদিন ভালই চলছিল। এখন একটা সমস্যায় পরছি। নীল কালিটা আসেনা। আর বাকি কালী গুলো ঠিক আছে। আমার প্রিন্টার epson t13. কার্টজে সমস্যা নাকি কালি ট্রান্সফার হয় না বুঝতেছি না। ধারনা থাকলে জানাবেন প্লিজ 🙁

    @সাইবার ডন: আমারও তো Epson T13। আমার ক্ষুদ্র অভিজ্ঞতা থেকে সমাধান:

    আপনার প্রিন্টার যদি শুধু নীল কালিটার নিচে ক্রস দেখায় তাহলে প্রিন্ট থাকুন যতক্ষণ না বাকি ইঙ্ক লেভেল ক্রস দেখায়। তারপর ইঙ্ক লেভেল আমার পদ্ধতি অনুসারে রিসেট করুন।

    ধন্যবাদ।
    [পারলে আপডেট নিউজ আমাকে জানিয়েন]

      @নিওফাইটের রাজ্যে: আমার কালির নিচে ক্রস দেখায় না। কালি দেখায় ফুল। কিন্তু প্রিন্ট করার সময় নিল কালি ছাড়া সকল কালি প্রিন্ট হয়।

    @সাইবার ডন: হায় হায়, এইটা কী বলেন?! 🙁
    এর সমাধান আমার কাছে নাই 😥
    দুঃখিত ভাই। আপনি অভিজ্ঞদের সাথে যোগাযোগ করুন।
    যদি পারেন, কার্ট্রিজটা খুলে হালকা ঝাকিয়ে দেখুন (সাবধানে) ।
    ধন্যবাদ।

      @নিওফাইটের রাজ্যে: নীল কালির হেড জ্যাম হয়ে গেছে/ পাইপে বাবল ডুকেছে। নীল কার্টিজের মুখে টিস্যুপেপার লাগিয়ে কালি চুইয়ে পড়তে দিন আধা ঘন্টা থেকে 1 ঘন্টা। 😀

jonosharthe tune ti sticky korar jonno moderator bhaider onurodh janachhi

আপনি তো মিয়া 3 idiots এর মি. ওয়াংড়ু 😛

১ম ক্যানন আই পি ৪২০০
২য় ব্রাদার ডি ছি পি ১৬৫ ছি অল ইন ওয়ান
৩য় ক্যানন আই পি ১৯৮০
এখন Epson R230x এ আছি ড্রাম কইরা নিসি আপনার মত নতুন থাক্তেই, আমি কোন সাদা কাল প্রিন্ট করিনা সব কালার । সব কালি ১ দাম
আর ১ম মাল্টা আমার অনুশীলনের জন্য নষ্ট হয়ে ছিল ? ৩ টা এখনও চলে
ধন্যবাদ

ওরে! কি টিউন!! বাপরে!!!

প্রিয়তে লিলাম, লাইক মারলাম; আর কিছু নাই; থাকলে করতাম।

গুরু! তোমায় স্যালুট!

    @মিনহাজুল হক শাওন: হায়রে গুরু, কি যে কন না 😳
    আপনি ছাড়া আমার প্রিন্টারও কিনা হৈত না আর টিউনও করা হৈত না। আপনার হেল্প না পাইলে এতদিনে প্রিন্টার বেইচ্চা কটকটি খাইতাম। 😛

    আপনাকেও স্যালুট। 😀 :mrgreen:

আচ্ছা CISS কিনলে কি কার্ট্রিজ বারবার বদলানো লাগবে না? অর্থাৎ এক কার্ট্রিজেই সারাজীবন চলবে?
আর CISS কি শুধু Inkjet Printer এর জন্য? Laser Printer এ সহজ প্রিন্ট এর জন্য সমাধান কি?
আর একটা প্রশ্ন, লেজার এবং ইঙ্কজেট প্রিন্টারের মধ্যে কোনটি প্রিন্ট করতে তুলনামুলকভাবে সস্তা এবং কোনটি প্রিন্ট করার জন্য ভালো?

    @ফাহীম আবরার:

    ১। CISS কিনলে এক কার্ট্রিজে সারাজীবন চলবে এমন কোন কথা নেই। CISS এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল এর খরচ অনেক কম এবং সহজেই রিফিল করা যায়। প্রিন্টের মানও খুব ভাল হয়। আপনি বছর বছর কার্ট্রিজের সেট কিনতে পারেন। আমার প্রিন্টারের মডেলের কার্ট্রিজের দাম সম্ভবত ২০০০+ টাকা।

    ২। হ্যাঁ CISS শুধু ইঙ্কজেট প্রিন্টারের জন্য। লেজার প্রিন্টারের সহজ সমাধান জানা নেই। 🙁

    ৩। লেজার প্রিন্টারের সুবিধা দ্রুততা, এর চেয়ে বেশি সুবিধা আমার জানা নেই। কমদামের লেজার প্রিন্টার দিয়ে কালার প্রিন্ট করা যায় না। কয়েকদিন আগে খবরের কাগজে দেখলাম লেজার প্রিন্টার থেকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কার্বন কণার নিঃসরণ ঘটে যার ফলে ক্যান্সার হতে পারে। বাসা-বাড়ি কিংবা সাধারণ অফিসিয়াল কাজে ইঙ্কজেট (CISS সহ) বেস্ট। অ-নে-ক সস্তা এবং প্রিন্টও খুব ভাল। এপসন অথবা হিউলেট প্যাকার্ড (এইচপি) নিতে পারেন। এপসনের ইঙ্কজেটের দাম ৩৮০০ থেকে শুরু।

    ধন্যবাদ। 🙂

DARUUUUUUN BHAI, AMI O BHABCHI EII PRINTER TAI KINBO, KINTU AMAR BROTHER dcp J125 E 1TA ERROR DAKHAYE INK ABSORBER NEAR FULL, AMIO CISS USE KORI, KI KORLE KI HOBE JANABEN PLZ,

PRIO TE RAKHLAM

Khub shundor tune hoyeche bhai. Accha ami ki CISS use korte parbo Hp Photosmart C5200 series printer e? And ei printer e duiti cartidge support kore tai eita korte gele koi korte hobe and koto taka porbe janale khub uppokrito hobo.

    @shuvz: ভাই আমি এপসন ইউজার। সবচেয়ে ভাল হয় যেখান থেকে কিনেছেন সেখানে একটা ফোন দিলে। যদি এইচপি এর কোন দোকান থেকে কিনে থাকেন তাহলে তাঁরা আপনাকে এ সম্পর্কে কোন তথ্য দেবে না। কারণ, তাহলে তাদেরই ক্ষতি হবে।

    আমি গুগল সার্চ দিয়ে একটা লিঙ্ক পেলাম। আপনি কষ্ট করে এই লিঙ্কটি ঘুরে আসুন। দেখুন, আপনার প্রিন্টার CISS সাপোর্ট করে কিনা।

    ধন্যবাদ। 😀

এমন টিউন করলে লগ ইন করে কমেন্ট না করে থাকা যায় না 😀 অসাধারন টিউন, ++++
টিউন কিভাবে প্রিয়তে নেয়া যায় তা কি বলতে পারেন ?

অসাধারণ টিউন ,
ভাই ,আমার ল্যাপটপে (fujitsu lifebook a series , ah530) আপনার printer-রের মডেলটি কি support করবে ? না কি ল্যাপটপের জন্য printer লাগে অনুগ্রহ জানাবেন।

টিউনের অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    @mana: হে হে 😀 , ল্যাপি, ডেস্কু কুন ব্যপার না। প্রিন্টারের ড্রাইভারটাই মেইন। আমি ডেস্কটপে (XP SP2) আর Dell XPS core i5 Win7 এও চালাই। দুইটাতেই চলে। আর লিনাক্স ড্রাইভার, ইনপুট, আউটপুট ডিভাইসের বস! না চলার কোনই কারণ নাই।

    কমেন্টের জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ। 🙂 :mrgreen:

ভাই আরো কিছুদিন আগে এই টিউনটা দিলে তো আমি ক্যানোন প্রিন্টার না কিনে Epson Inkjet প্রিন্টার কিনতাম ।
দারুন ফাটাফাটি টিউন 😀 😀 😀

ctrl+p 🙂

সরাসরি প্রিয়তে, অনেক কষ্ট করছেন ভাই, ধন্যবাদ

চিঙ্গাপ… 😛 চক্ষাম হইসে রাজন… ধনিয়া পাতা…

    @ডিজে আরিফ: ইও ইও বেবি, জিগি জিগি জ্যাগ 😀 😛 :mrgreen:
    ধইন্ন্যা পাতা দিতে দিতে ফুরাইয়া যাইতাসে। আপাতত এক বিঘা ক্ষেতের ধইন্ন্যা দিলাম। 🙂 😉

এমন টিউন করলে লগ ইন করে কমেন্ট না করে থাকা যায় না 😀 অসাধারন টিউন, ++++

গ্রাভাটার চেন্জ হইল কিনা দেখতে আইছিলাম। নিচে একটু উকি মারতে গিয়া দেখি তোর টিউন। সুপার ডুপার ব্লাস্টার টিউন 🙂 🙂 🙂 🙂 🙂 🙂 :)। চালাইয়া যা

এত টাইম পাস কই? আমারতো পড়তে পড়তে জান শেষ 😥 😥 😥 😥 😥 😥 😥

    @উন্মাদ তন্ময়: আরে, আমাগো এলাকায় গত দুইদিন যাবত ইলেক্ট্রিসিটির দেখা নাই। ঐ সময়ে টিউনটা বানাইলাম।

    পড়তে থাক, GPA Platinum 6 পাবি মনে হয়?! 🙄 😆

    @উন্মাদ তন্ময়: চাপা এট্টু কম মাইরো!! জানুয়ারি মাসের ২৫ তারিখ দেইক্ষা লমু। কোন সাবজেক্টে আমার চেয়ে তুই বেশি পাইলে হরতাল ডাকুম। ^ ^
    আমি বেশি পামু না সেই ব্যপারে নিশ্চিত থাক! অতএব হরতাল অবধারিত। 😆 😈

ভাই আপনার টিউন দেইখা তব্দা খাইয়া গেলাম। এক টেরাক ধইন্ন্যা পাতা।

ওরে প্রিন্টার দেখি কিনতেই হয়। আর টিউন প্রিয়তে টুকে নিলাম।
তুমি খুব তাড়াতাড়ি টপ টিউনার+ প্রিয় টিউনার হিসেবে পরিচিতি পাবে যাও আগেই বলে দিলাম। 😉 😀

    @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): হুম, প্রিন্টার কিনে ফেলেন। 😉
    আর আমাগো মত সাধারণ পাবলিকের টিউনও আপনার প্রিয়র ঝুলিতে যায়?! 😛 😮
    টপ্টিউনারদের কমেন্ট দেখলে নিজেরে ভিয়াইপি মুনে অয়। :D :mrgreen:
    টেরাক নাই তাই ১০ বস্তা ধইন্ন্যা পাতা দিলাম। 🙂

পুরা ধামাকা টিউন। সরাসরি প্রিয়তে। ধন্যবাদ ভাই।

অনেক সুন্দর টিউন ভাই, এককথায় অসাধারন, আপনাকে কি বলে যে ধন্যবাদ দেব সেটা আমার জানা নাই। আপনার সবগুলো টিউন আমি খুব মনোযোগ দিয়ে পড়ি। নিচে টিউনটির পিডিএফ ফাইল মিডিয়াফায়ারে আপলোড করে দিলাম।

    @আব্দুল মালেক: আপনাকেও ধন্যবাদ দেওয়ার ভাষা আমার নেই। যা বলব তা-ই কম হবে তারপরও বলছি কষ্ট করে পিডিএফ ফাইল তৈরী করে আপলোড করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। ভাল থাকুন। 😀 :mrgreen:

এক কথায় কোটি টাকার টিউন !!!

😀

নিওফাইটের রাজ্যে- ভাই কে সহজ ভাষায় গুছিয়ে লেখা অসাধারণ টিউন এর জন্য অসংখ ধন্যবাদ । আমার ইচ্ছা ছিলো City IT Fair (IDB) থেকে HP র e-AIO B110a-মডেল এর প্রিন্টার টি কেনার । তবে আপনার টিউন টি পড়ার পর CISS supported printer ই কিনবো । কিন্তু আমার পছন্দ করা প্রিন্টার টি CISS support করবে কিনা সেটি আমি কিভাবে বুঝবো? এটি চেক করার কোনো ব্যবস্থা আছে কি ? CISS কি কার্ট্রিজের সাথে লাগানো অবস্থায় থাকে নাকি লাগিয়ে নিতে হয় আমি বলতে চাচ্ছি যে প্রিন্টারের সাথে তো কার্ট্রিজ দেয়াই থাকবে তাহলে CISS কি এই কার্ট্রিজের সাথেই লাগবে কিনা ? প্রিন্টার এবং CISS একই দোকানে পাওয়া যাবে কি-থাকলে কোথায় ?

    @shuvojit:

    । আমার ইচ্ছা ছিলো City IT Fair (IDB) থেকে HP র e-AIO B110a-মডেল এর প্রিন্টার টি কেনার । তবে আপনার টিউন টি পড়ার পর CISS supported printer ই কিনবো । কিন্তু আমার পছন্দ করা প্রিন্টার টি CISS support করবে কিনা সেটি আমি কিভাবে বুঝবো?

    আপনার পছন্দের প্রিন্টারটি CISS সাপোর্ট করবে কিনা সেটা জানার সবচেয়ে ভাল মাধ্যম হল সেইসব দোকানে জিজ্ঞাসা করা যারা CISS লাগিয়ে থাকেন। এপসন বা এইচপি এর শোরুম থেকে কিনলে সেখানকার কেউ আপনাকে CISS সম্পর্কে তথ্য দেবে না।

    এটি চেক করার কোনো ব্যবস্থা আছে কি ?

    গুগলের মাধ্যমে জেনে নিতে পারেন অথবা যারা CISS লাগিয়ে থাকেন তাঁদের কাছ থেকে জেনে নিতে পারেন। তবে বেশিরভাগ ইঙ্কজেট প্রিন্টার CISS সাপোর্ট করে

    CISS কি কার্ট্রিজের সাথে লাগানো অবস্থায় থাকে নাকি লাগিয়ে নিতে হয় আমি বলতে চাচ্ছি যে প্রিন্টারের সাথে তো কার্ট্রিজ দেয়াই থাকবে তাহলে CISS কি এই কার্ট্রিজের সাথেই লাগবে কিনা ?

    প্রিন্টারের সাথে CISS থাকে না, এটা আলাদাভাবে লাগিয়ে নিতে হয়। হ্যাঁ, এটা কার্ট্রিজের সাথে লাগানো হয়ে থাকে। এটা ঠিক আপনার মোবাইলের ব্লুটুথ হেডসেটের মত। সব মোবাইল কেনার সময় ব্লুটুথ হেডসেট সাথে দেয়? না, এটা আলাদাভাবে কিনে নিতে হয়।

    প্রিন্টার এবং CISS একই দোকানে পাওয়া যাবে কি-থাকলে কোথায় ?

    হ্যাঁ একই দোকানে পাওয়া যায়। এদিক ওদিক খুঁজলেই পাবেন।

    দেরিতে রিপ্লাইয়ের জন্য দুঃখিত। 🙁 , আসলে টেকটিউন্স গত দুইদিন যাবত ওপেন হচ্ছিল না।
    কমেন্টের জন্য ধইন্ন্যা পাতা। 😀

অসাধারণ।

অনবদ্য।

আপনার লেখা , সহজ সাবলীল ভাষা নিয়ে আর নতুন করে কী বলব আমার আগে সকলেই বলে দিয়েছেন।

প্রিন্টার নিয়ে সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের কাছে ভীষণই কাজের।

তবে আমি বলব এমন ঝকঝকে তকতকে সাজানো পোস্ট আমি খুবই কম দেখেছি। আপনার স্ক্রীনসট গুলিকে ব্যবহার দারুণ। ফটোশপে যে আপনি দারুণ দক্ষ আপনি তা জানালেও আমি জেনে গেছি। আসলে একটা কথা আছে যে ছেলে বা মেয়ে সুন্দর ( Not সুন্দরী ) তার আলাদা করে সজার প্রয়োজনই হয় না।

আপনার রাজ্যে এসে অনেক কিছু শিখলাম।

এমনই টিউনের অপেক্ষায় থাকছি।

    @Sobujer Abhijan: অনবদ্য কমেন্ট !

    ফটোশপে যে আপনি দারুণ দক্ষ আপনি তা জানালেও আমি জেনে গেছি।

    ভাই ফটুকশপ কিনার পয়সা নাই। আমি লিনাক্স মিন্ট ইউসার। পাইরেসি করি না। উইন্ডোজ ৭ এ আমার ফ্রি সফটওয়্যার দিয়ে যতটুকু পারি ঠিক ততটুকুই করার চেষ্টা করি। (আমার উইন্ডোজ ৭ জেনুইন 😀 )

    আপনার কমপ্লিমেন্টের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। 😀 🙂
    ভাল থাকুন। 🙂

বন্ধু ,
আমার মনে হল হয়তো কোনো জায়গায় আপনাকে আমি আঘাত করে ফেলেছি।

কোনোরকম আঘাত দেওয়া আমার উদ্দেশ্য ছিল না।যতটুকু লিখেছি একেবারে অন্তর থেকে।বিশ্বাস করাটা একেবারেই আপনার উপর।

ফটোশপ বলতে আমি আপনার এই পাতার Designing কে বোঝাতে চেয়েছিলাম।

যাক ওসব কথা। আমার পাতাতে একটু যাবেন।একটা বিষয়ে একটু সাহায্য চাই।ওখানে লিখেছি বলে আর লিখলাম না।

আমার মন্তব্য সংশোধন করে দিলাম-
*****************************************************
অসাধারণ।

অনবদ্য।

আপনার লেখা , সহজ সাবলীল ভাষা নিয়ে আর নতুন করে কী বলব আমার আগে সকলেই বলে দিয়েছেন।

প্রিন্টার নিয়ে সমস্যায় যারা ভুগছেন তাদের কাছে ভীষণই কাজের।

তবে আমি বলব এমন ঝকঝকে তকতকে সাজানো পোস্ট আমি খুবই কম দেখেছি। আপনার স্ক্রীনসট গুলিকে ব্যবহার দারুণ। ব্লগ সাজানো ও কারুকার্যে যে আপনি দারুণ দক্ষ আপনি তা জানালেও আমি জেনে গেছি। আসলে একটা কথা আছে যে ছেলে বা মেয়ে সুন্দর ( Not সুন্দরী ) তার আলাদা করে সাজার প্রয়োজনই হয় না।

আপনার রাজ্যে এসে অনেক কিছু শিখলাম।

এমনই টিউনের অপেক্ষায় থাকছি।

(আপনার মতো লেখার পাশে কালারিং লম্বা দাগ দেওয়ার কোনো অপশান পেলাম না।

হঠাৎ করে মনে একটা কথা উদয় হল -ব্লগ সাজানোর উপরে একটা টিউন করুন না ,খুব ভালো হয় তাহলে।)

ভালো থাকুন।

    @Sobujer Abhijan: বন্ধু বলে যখন ডেকেছেন, তখন আবার আঘাতের কথা আসছে কেন?

    কোনোরকম আঘাত দেওয়া আমার উদ্দেশ্য ছিল না

    নাহ, আঘাত কিসের? আমি আপনার কথা বুঝতে পেরেছি। আপনিও আমার কথায় কিছু মনে করবেন না। 🙂

    আপনার মতো লেখার পাশে কালারিং লম্বা দাগ দেওয়ার কোনো অপশান পেলাম না।

    লম্বা দাগ blockquote অপশনের মাধ্যমে দেওয়া যায়। আপনি টিউন লিখার সময় ঠিক কমার মত একটা জিনিস দেখবেন। মাউসের কার্সর রাখলে যদি লেখা দেখেন ‘blockquote’ তাহলে বুঝবেন আপনার নির্বাচন সঠিক। এরপর আপনি যে লেখা কিংবা ছবির পাশে লম্বা দাগ দিতে চান সেটা কার্সর দিয়ে হাইলাইট অথবা সিলেক্ট করে blockquote এ ক্লিক করবেন। যদি সব ঠিকঠাক হয় তাহলে লেখা কিংবা ছবি একটু ডান দিকে সরে যাবে। পোস্ট লিখার সময় কিছু দেখবেন না কিন্তু লেখা পাবলিশ অথবা ড্রাফ্ট সেভ করে প্রিভিউ দিলে ঠিক আসবে। না পারলে আমাকে জিজ্ঞাসা করতে দ্বিধাবোধ করবেন না।
    লেখার নিচে লম্বা আন্ডারলাইন দিতে Heading 2 নির্বাচন করুন। 😀

    ফটোশপ বলতে আমি আপনার এই পাতার Designing কে বোঝাতে চেয়েছিলাম।

    সমস্যা নেই, এখন ক্লিয়ার। Designing না পারলেও আপনার কাছ থেকে এরকম কমেন্ট পাওয়া আমার সৌভাগ্য। 🙂

    আমার পাতাতে একটু যাবেন।একটা বিষয়ে একটু সাহায্য চাই।ওখানে লিখেছি বলে আর লিখলাম না।

    ভাই আমার যাওয়ার অনেক ইচ্ছা ছিল। ব্যস্ত থাকায় যেতে পারিনি বলে দুঃখিত। কমেন্ট এডিট করার অপশন আগে টেটিতে ছিল। অনেক অসাধু ব্যক্তিদের কারণে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এখন কমেন্ট মোছা যায় কিন্তু এডিট করা যায় না। 🙁

    আপনার রাজ্যে এসে অনেক কিছু শিখলাম।

    অনেক ধন্যবাদ। আপনার অভিযানেও আমি অনেক কিছু শিখি। 🙂

    ব্লগ সাজানোর উপরে একটা টিউন করুন

    ব্লগ সাজানোর টিউন আপনি টেকটিউন্স রিসোর্সে পাবেন। যদি সময় পাই তাহলে আমি করব। 😀 😆

    ভালো থাকুন

    আপনিও ভালো, সুস্থ এবং হাসিখুশি থাকুন আর আমাদের গল্পের আকারে সুন্দর সুন্দর টিউন উপহার দিন। অসংখ্য ধন্যবাদ এবং আপনার জন্য শুভকামনা রইল। :mrgreen: 😀 🙂

bai HP Deskjet 1000 J110 printer ki refill kora jai. r gele koto taka lagbe r kibabe korbo?please janaben.balo thaben.

    @MONIR.HOSSAIN: ভাই এইচপি সম্পর্কে আমার ধারণা নাই, দুঃখিত 🙁
    তবে প্রিন্টার যেখান থেকে কিনেছেন সেখানে একবার জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন।
    ধন্যবাদ। 🙂

dada ami canon PIXMA MG2170 ai printer ta choice korechhi. ami photo print korte chai, eta all in one printer, tay koyekta proshno achhe. please bole din.
1. photo printer a ki documents print kora jay?
2.ami jodi ink r cartrige kini tahole jodi besi print na kori tahole ki kali sukiye jabe?
3.

    @rrahul:

    1. photo printer a ki documents print kora jay?

    হ্যাঁ, ফটো প্রিন্টারে ডকুমেন্ট প্রিন্ট করা যায়।

    2.ami jodi ink r cartrige kini tahole jodi besi print na kori tahole ki kali sukiye jabe?

    প্রিন্ট না করলে কালি শুকিয়ে যায়, আপনি নিয়মিত প্রিন্ট করলে এই সমস্যায় পড়বেন না। সপ্তাহে দুটি হাই কোয়ালিটি প্রিন্ট করলে এই সমস্যা হবে না।
    ধন্যবাদ। 🙂

আমার পিন্টারের মডেল ইপসন্স স্টাইল টি ১৩।
আমার পিন্টারের লাইফ টাইম কি ইপসন্স পিন্টার ২৩০ এর মত সমস্য হবে।
আমার পিন্টারের বিস্তারিত জানিয়ে উপকৃত করবেন।

a dekhchhi dada anek kharoch. printerer dam kom kintu kali cartrige paper ai sobe dekhchhi kharoch anek.amar besi kaj nei printerer. 4200 te pabo sune bhablam kinbo. barite kato r use korbo bolun. printer pele apnader ai mulloban tune gulo print kore rekhe ditam ba keo chaile ditam ai r ki. eto dekhchhi 6500 mato budget porbe.

    @rrahul: এপসন ইন্কজেটেই তো ভাল মানের ফটোপ্রিন্ট করা যায়। দামেও সস্তা। একটা কালির ড্রাম (CISS) কিনে নিলে অনে-এ-এ-ক দিন চলে। কালি রিসেট করার সিস্টেম তো দিয়েছি। CISS এ আর কোন সমস্যা নেই।
    ধন্যবাদ। 🙂

১.আপনার এই প্রিন্টারের স্পিড কেমন ? মানে মিনিটে কটা করে প্রিন্ট দেয় ?

২।এটা কি All in One ( Scanner ,copier ,printer ) ?

    @সবুজের অভিযান ( Sobujer Abhijan ):

    ১.আপনার এই প্রিন্টারের স্পিড কেমন ? মানে মিনিটে কটা করে প্রিন্ট দেয় ?

    প্রিন্টের স্পিড যেকোন প্রিন্টারের জন্য তিনটি ফ্যাক্টরের উপর নির্ভর করে:
    ১। প্রিন্টিং কোয়ালিটি (সবচেয়ে বেশি নির্ভর করে, কোয়ালিটি ভাল মানের চাইলে স্পিড কমবে, কোয়ালিটির নিম্নক্রম: হাই ফটো>ফটো>ইমেজ এ্যান্ড টেক্সট>টেক্সট>ড্রাফট>ইকোনমি; বুঝতেই পারছেন সবচেয়ে ভাল হল ‘হাই ফটো’ এবং সবচেয়ে খারাপ হল ‘ইকনোমি’; লিনাক্সে আরও ভাগ আছে, প্রায় ৯টা)
    ২। আপনি যে ডকুমেন্ট প্রিন্ট করতে চাইছেন তা কতটুকু। মানে ডকুমেন্টের পেজে কতগুলো লেখা আছে তার উপর নির্ভর করে। কম লেখায় তাড়াতাড়ি প্রিন্ট হয়।
    ৩। স্মুথনেস।( যে কাগজ ব্যবহার করছেন সেটা লো কোয়ালিটি হলে ওটা নিয়ে প্রিন্টারের সাথে ছোটখাট বিশ্বযুদ্ধ হয় এবং তাতে সময় নষ্ট হয়। কাগজ বেশি পরিমানে টান দিলে{একসাথে ২-৩টা} প্রিন্ট আস্তে আস্তে হয় ও কার্ট্রিজের হেডের উপর চাপ পড়ে, তাই প্রিন্ট যত স্মুথলি করা যায় তত ভাল)

    ২।এটা কি All in One ( Scanner ,copier ,printer ) ?

    প্রিন্টারের ছবি তো পোস্টের শুরুতেই দিলাম! ওটা দেখে কী মনে হয় এটাতে এত কিছু আছে? 😕 যাই হোক, অল ইন ওয়ান ব্যপারটা আমার কাছে মোটেও ভাল লাগে না। আমার পরিচিত একজনের অল ইন ওয়ানের একসাথে সব নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। মানে অল ইন ওয়ান গন!! যেটা বলছিলাম আরকি, ওটাতে এত কিছু নেই। শুধু প্রিন্ট করে।

    ধন্যবাদ। 🙂

এই টিউন খুবই সুন্দর ও কাজের টিউন……….. শেয়ার করার জন্ন আপনাকে ধন্নবাদ….

আর্জেন্ট হেল্প করেন

আজ বা কাল প্রিন্টার কিনব, সাধারণ কাজ, কোনটা কিনব বলেন কম দামের মধ্যে?
আপনার কত খরচ হইছে ৩৮০০+ আর কি কি ?
আমার প্রিন্টিং নলেজ ০।

    @শাহেদ খান (আনারস পাতা): ভাই দেরিতে রিপ্লাই দেওয়ার জন্য দুঃখিত। আমার প্রিন্টার কিনতে খরচ হয়েছে ৪৮০০ টাকা। CISS সহ। আর কালির ড্রাম বা CISS না কিনতে চাইলে প্রিন্টারের দাম পড়বে ৪০০০টাকা (এপসন টি১৩) । আর এটা ইঙ্কজেট।
    সাধারণ কাজ কিংবা ভারী কাজ, সবক্ষেত্রে CISS ব্যবহার করাই ভাল। আমার অলরেডি ২০০০+ কাগজ প্রিন্ট করা কম্প্লিট। কোন সমস্যাই হয় নি। এপসন কিনতে বলছি এই কারণে এটার লাইফটাইম রিসেটার এবং আনুষঙ্গিক সফটওয়্যার খুঁজলেই পাবেন।
    ধন্যবাদ। 🙂

ভাই আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন এখন বাজারে Epson Inkjet T13 CISS সহ দাম কত ??????????? কেউ বললে আমার খুব উপকার হত……………………………..
ভাই আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন এখন বাজারে Epson Inkjet T13 CISS সহ দাম কত ??????????? কেউ বললে আমার খুব উপকার হত……………………………..
ভাই আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন এখন বাজারে Epson Inkjet T13 CISS সহ দাম কত ??????????? কেউ বললে আমার খুব উপকার হত……………………………..
ভাই আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন এখন বাজারে Epson Inkjet T13 CISS সহ দাম কত ??????????? কেউ বললে আমার খুব উপকার হত……………………………..

    @MD.RAFIKUL ISLAM:
    ৪৮০০/-৳ ——————— বলে দিলাম
    ৪৮০০/-৳ ——————— বলে দিলাম
    ৪৮০০/-৳ ——————— বলে দিলাম
    ৪৮০০/-৳ ——————— বলে দিলাম

প্রিয়তে যোগ করলাম।
সেইসাথে ধন্যবাদ তো থাকছেই 🙂

আমি ciss supported printer কিনতে চাচ্ছি, কোন প্রিন্টার কিনলে ভালো হবে, আর কোন দোকানে পাওয়া যাবে? একটু সাজেশান দিবেন। প্রতিদিন প্রায় ৩০টার মতো প্রিন্ট দিতে হয়

    @Papon: CISS সহ কিনলে এপসনই ভাল চয়েস। অন্য প্রিন্টারগুলোতে নানা ধরণের অসুবিধা হয়। আর এপসন নিয়ে যেকোন সমস্যায় হেল্প সহজেই পাবেন।
    যেকোন কম্পুটারের দোকানেই প্রিন্টার CISS সহ কিনতে পাওয়া যায়। ঢাকার মাল্টিপ্ল্যান সেন্টার, IDB, ইত্যাদি জায়গায় পাওয়া যায়।
    Epson Inkjet t13 এর দাম পড়বে ৫০০০ এর মত (কার্ট্রিজ+CISS সহ)। ধন্যবাদ

brother you are great . contact no ta deben

    @sumon70: কনট্যাক্ট নাম্বারে আমাকে পাবেন না (নেটওয়ার্কে সমস্যা)। আমার নিকটা ফেবুতে সার্চ দিন। তাহলেই পাবেন। ধন্যবাদ 🙂

দ্রষ্টব্য: নেট মাস্টার ভাইয়ের টিউন অনুসরণ করে এই টিউনটি কিছুটা আপডেট করা হল। টিউন পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট করবেন।

ঐ হালা এত বড় বড় টিউন করছ কেন 😡 লোড হইতেই ৫মিনিট টাইম লাগে

যাউগগা, পোস্ট নির্বাচিত হওয়ার শুভেচ্ছা 😀

ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা রইল…

আপনার টিউন আগে ও মনো যোগ দিয়ে পড়ছি কিন্তু ধন্যবাদ দেয়া হয়নি, আপনাকে ধন্যবাদ। http://www.techtunes.com.bd/download/tune-id/19147/ এর সফটটা কি আপনার কাছে আছে। থাকলে নামানোর লিংকটা দিয়েন।

মাঝে মাঝে এমন কতগুলি টিউন দেখি যা নিজ থেকেই ইচ্ছে হয় ধন্যবাদ দেওয়ার জন্য, বলার প্রয়োজন হয় না। দোয়া করি আপনার মাধ্যমে এবং সকল টিউনারদের মাধ্যমে আমরা যেন আই টি সেক্টরকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। আমাদের দেশে যারা এইসব কাজ করে তারা অনেক টেলেন্ট কিন্তু আমাদের একটি সমস্যা হচ্ছে আমরা ইংরেজীদে দূর্বল হওয়ায় আমরা অনেক কিছু চাইলেও পারিনা। তাই এই বাংলা ব্লগ আমাদের জন্য আর্শিবাদ হয়ে আসুক। এই কামনা আমাদের সবার যাতে আমরা বাংলাদেশকে অনেক অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। ভাল থাকবেন।

    @Md. Shafiul Azam Teto: চমৎকার একটি মন্তব্যের জন্য বিশেষ ধন্যবাদ আপনার প্রাপ্য। :mrgreen:

    এই বাংলা ব্লগ আমাদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে আসুক।

    আমিও তাই চাই, তবে টেকি বিষয়গুলোতে বাংলা ব্লগের অবদান সত্যিই অবিস্মরণীয়। 🙂
    আপনিও ভাল থাকবেন। ধন্যবাদ। 🙂 😀

আগুণ পোস্ট!

মাশাল্লা
জব্বর এক খান টিউন করছেন। প্রিয়তে না রাখার প্রশ্নই উঠে না।

vaiia amar cannon er inject printer (pixma MP276) er ciss er price kmn hobe?r kothai theka kinbo?pls inform me

    @ইব্রাহীম: আপনার প্রিন্টার CISS সাপোর্ট করে। CISS এর দাম হাজার খানেকের মতই হওয়ার কথা। আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারছি না। আপনি দয়া করে এই লিঙ্কে গিয়ে ওদেরকে ফোন দিয়ে দরদাম জানতে পারবেন।
    ধন্যবাদ। 🙂

@সকল রেজিস্টার্ড সদস্যবৃন্দ, আমি ব্যক্তিগতভাবে স্প্যামিং খুবই অপছন্দ করি। আমার এই টিউনে ২ জন স্প্যাম লিঙ্ক এবং ফোন নম্বরসহ স্প্যামিং করেছেন। একজনের স্প্যাম কমেন্ট আমি মুছে দেই এবং ২য়টি মুছে দেন মডারেটর।

যদি অন্য কেউ স্প্যামিং করতে চান তাদেরকে আমি স্বাগত জানাই।
তবে মডারেটরদের আগে আমার চোখে কোন স্প্যাম কমেন্ট চোখে পড়লে আমি তৎক্ষণাৎ মুছে দেবো।
তাই আপাত দৃষ্টিতে স্প্যামিং করে লাভ নেই। আপনারা সকলেই ব্লগের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে সহায়তা করুন।
ধন্যবাদ।

এ যেন মেঘ না চাইতেই বৃষ্টি, চিন্তা করতেছিলাম একটা প্রিন্টার কেনার, তার আগেই সমস্যা সহ সমাধান, ধন্যবাদ ভাই @নিওফাইটের রাজ্যে

Salute salute and salute.

ভাই আপনাকে লাল সালাম

    @Rahman noor: সব লাল সালাম আমাকে দিয়েন না 😛 । এইখানে সহজ ও জটিল দুইটি পদ্ধতি দেখানো হয়েছে। 😀 সহজ পদ্ধতিটা নেট মাস্টার ভাইয়ের কৃতিত্ব। তাই এক্ষেত্রে উনার অবদান অনস্বীকার্য। 🙂
    ধন্যবাদ রহমান ভাই। 🙂

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। যখনি পি্রন্তারের সেটআপ এ কোন সমস্যা হবে আপনার এ টিউন টা দেখে নেব।

নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন।

ধন্যবাদ ভাই, দারুন লেখা দিয়েছেন, সাইফাই লিখলে ভাল উন্নতি করতেন, লেখা পড়ে দারুন লেগেছে।

ভাই , জানালা ৭ এ hp lasar jet P 1005 ইনষ্টল করতে পারলাম না . জরুড়ী দরকার , হেপ্লান ,

USB can not recognized – দেথায় , কোন ভাবেই printer কে চিনতে পারে না .

hp সাইট সফটআয়ার নামিয়ে ইনষ্টল করার পর connect the USB cable দেথালে – কোন কাজ হয় না it doesn’t complete the installation. দেথায় I tried downloading the new drivers from the support area but it doesn’t work anyway. সম্ভব হলে আপনার ফোন নম্বর দিয়েন , আমার নম্বর ০১৭১২০০০৮৭৬

    @সোহেল: বুঝেছি, আপনার প্রিন্টারের USB ক্যাবলে সমস্যা না হলে আপনার পিসির USB Port এ সমস্যা। যদি একাধিক USB Port থাকে তাহলে সেগুলোতে চেষ্টা করে দেখুন। তারপরও সমস্যা থাকলে বুঝবেন আপনার প্রিন্টারের USB Cable এ সমস্যা।
    আমার আগের প্রিন্টারের USB ক্যাবল এর কিছু অংশ একসময় ইঁদুর খেয়ে ফেলে তারপর ঔ রকম সমস্যা দেখা দিয়েছিল আরকি। :mrgreen:
    তারপরও সমস্যা থাকলে বাইরের দোকান থেকে USB Cable নিয়ে এসে লাগিয়ে টেস্ট করে দেখুন, আর না হলে এখানে কমেন্ট দিয়েন। ধন্যবাদ। 🙂

আমি একটি প্রিন্টার কিনতে চাই.
Epson T50
েএই প্রিন্টারটা কেমন সর্ভিস দেয়
কেই জানেন কি?

অসাধারন।

ভাই আপনার এই টিউনটি আমাদের অনেক উপকার হয়েছে। আশা করি আমাদের জন্য আবারো অনেক টিউন করবেন।

Amar printer epson t13. problem holo printer ON korlei ink charge hoy & print dile bole printer off korte & “foreign object” remove korte. off kore on korle abar akoi obostha.
ki korbo?

    @Ashif Khan: প্রিন্টারের রোলারে/কার্ট্রিজের হেডে অবাঞ্ছিত কিছু থাকলে যেমন, কাগজের টুকরা, অন্যান্য ক্ষুদ্র আবর্জনা ইত্যাদি থাকলে এ সমস্যা হয় এবং কার্ট্রিজ ঠিকভাবে বসাতে না পারলে এ সমস্যাটি দেখা দেয়।
    আপনার প্রিন্টারের রোলার পরিষ্কার করুন, কার্ট্রিজ উঠিয়ে আবার ঠিকভাবে বসান, এতে ময়লা থাকলে টিস্যু দিয়ে পরিষ্কার করুন। তাহলে আশা করি সমস্যাটির সমাধান হবে। ধন্যবাদ 🙂

@নিওফাইটের রাজ্যে ভাই একটা প্রিন্টার কিনব ডকুমেন্ট ও ছবি (মোটামুটি ভালো মানের) প্রিন্টের জন্য । হোম ইউজের জন্য মানে কোন সাপ্তাহে ৫-১০ পেজ ব্যবহার করব আবার কোন সাপ্তাহে হয়ত একদমই করব না। বাজেট ৫০০০ টাকা। কোন প্রিন্টার কিনলে ভাল হবে? বেশি দিন অব্যবহারিত থাকলে নষ্ট হবেনাতো? প্রিন্টের খরচ মিনিমাম রাখতে চাই।

    @মোঃ ফাহিমুজ্জামান: এপসন Inkjet T13 টাই নিন। CISS এর মধ্যে এটা সবচেয়ে স্ট্যাবল। আর দামও আপনার বাজেটের মধ্যেই। একদম প্রিন্ট না করা উচিৎ হবে না, সেটা যেকোন প্রিন্টারের ক্ষেত্রেই। CISS এ কালির তো অভাব নেই। সপ্তাহে দুইটা হাই রেজোলিউশনের প্রিন্ট দিবেন। তাহলে আর সমস্যা হবে না।
    এমন কোন প্রিন্টার নেই যেটা অব্যবহৃত রাখলে ভাল থাকবে, প্রিন্টার দিয়ে নিয়মিত প্রিন্ট করলেই বরং প্রিন্টার ভাল থাকে
    ধন্যবাদ 🙂

Epson Stylus T13 প্রিন্টার এ কি A4 সাইজ এ Borderless প্রিন্ট করা যায়? আর প্রিন্ট করা গেলে তা কি ভাবে করা যায় তা জানালে উপকৃত হব।

Khubb e sundor hoyeche, tune ti boro hole o portey moja legeche.And totho_bohul.

আমার কমান্ড যদি প্রথমে হিট। 🙂

>> অনেক অনেক তথ্যমূলক একটি সুন্দর টিউন। >> অনেক ভাল লাগল। >> মানুষ কে শিক্ষা দেওয়ার মনমানসিকতার মানুষগুলোই মহান হয়। >> আপনার গঠনমুলক একটি সুন্দর উপস্থাপনা সকলকে মুগ্ধ করেছে। >> এগিয়ে যান অনেক ভাল করবেন। 🙂 🙂 🙂 🙂 🙂

টিউনটি অনেক মনোযোগ দিয়ে পড়লাম কমেন্টসহ, কিন্তু মার্কেটে গিয়ে ৩ বা ৪ হাজার টাকার মধ্যে কোন প্রিন্টার পেলাম না ৷৷৷

প্রিন্টার কিনব কম দামের মধ্যে কোনটা ভাল হবে? ড্রাম করানোসহ ৷৷৷ প্লিজ হেল্প ৷৷৷

যথেষ্ট তথ্য মূলক টিউন ধন্যবাদ @নিওফাইটের_রাজ্যে

অনেক ভাল লাগল প্রিন্টার কিনার আগে তথ্যটা জেনে গেলাম।
ধন্যবাদ ভাই নিওফাইটার
তবে কমেন্ট করার জন্য অনেক নিচেয় আসতে হল।
কি আর করার কেন যে প্রথমে দেখলাম না ….

You must be logged in to post a Tumment.