Quantcast
Ads by Techtunes - tAds

আসছে iPhone 8 – আইফোন ৮ : দেখুন লিক হওয়া iPhone 8 এর Expensive Secrets

0 টিউমেন্টস 1,048 দেখা প্রিয়

গত বছর আইফোন ৭ এবং ৭ প্লাস রিলিজ করার পরে ইউজারদের কাছ থেকে অনেক ভাল রেসপন্স পায় অ্যাপল। যদিও এই দুটি ফোন ছিল প্রায় পৃথিবীর সবথেকে বেশি দামি স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে অন্যতম, তবুও প্রযুক্তি জগতে অস্বাভাবিক রকমের সাড়া ফেলেছিল এই দুটি স্মার্টফোন।

গত বছর প্রথমবারের মত আইফোন ফ্যামিলিতে যুক্ত হয় ওয়াটার রেসিস্ট্যান্স এবং ডুয়্যাল ক্যামেরা যে দুটি ছিল অ্যাপল এর জন্য অনেক বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

যদিও তারা হেডফোন জ্যাক এর মত একটি দরকারি পোর্ট রিমুভ করে দেয় আইফোন ৭ এবং ৭ প্লাস থেকে, তবুও এই বাজে ডিসিশনটি তাদের ফোনের জনপ্রিয়তা খুব একটা বেশি কমাতে পারেনি।

হাজার হাজার লিমিটেশন এবং এত বেশি দামী হওয়া সত্ত্বেও অনেক মানুষ আছেন যারা আইফোন ছাড়া আর কিছু ভাবতেই পারেন না শুধুমাত্র আইফোনের সফটওয়্যার এবং ইউজার এক্সপেরিয়েন্স এবং অ্যাপল ইকোসিস্টেম এর কারনে।

যাইহোক, গত বছরের নতুন আইফোন দুটির তুমুল জনপ্রিয়তার সুত্র ধরে অ্যাপল ২০১৭ সালে এখন রিলিজ করতে যাচ্ছে তাদের নতুন আইফোন, iPhone 8 - আইফোন ৮। কিন্তু এর ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে তেমন কিছু জানা যায়নি। খুব সম্ভবত অ্যাপল এর নতুন ফোনের নাম হবে iPhone 8 - আইফোন ৮ বা আইফোন এক্স অথবা আইফোন এডিশন। এখনো পর্যন্ত জানতে পারা সবথেকে বিশ্বাসযোগ্য খবর অনুযায়ী এই ফোনের নাম হবে iPhone 8 - আইফোন ৮। খুব সম্ভবত অ্যাপল এবছর আরো নতুন ৪ টি ফোন রিলিজ করবে। এর মধ্যে দুটি হবে আগের বছরের আইফোনের আপগ্রেডেড ভারশন এবং বাকি দুটি হবে নতুন মডেল। Rumor অনুযায়ী অ্যাপল এর রিলিজ করা ৪ টি ফোনের নাম হবে,

  • আইফোন ৭ এস
  • আইফোন ৭ এস প্লাস
  • আইফোন ৮
  • আইফোন ৮ প্লাস

আইফোন ৭ এস এবং ৭ এস প্লাস নিয়ে তেমন কিছুই বলার নেই কারন এই দুটি শুধুমাত্র হার্ডওয়্যার আপগ্রেড। আমাদের টিউনের বিষয় হচ্ছে অ্যাপল এর নতুন আইফোন, আইফোন ৮। তো চলুন দেখা যাক কি কি থাকতে পারে অ্যাপল এর এই নতুন আইফোনে।

বিঃদ্রঃ এই টিউনে দেওয়া প্রত্যেকটি আইফোনের ছবি শুধুমাত্র কিছু Rumor এবং Leaks। এগুলো অ্যাপল এর নিজের কোন অফিশিয়াল প্রোডাক্ট পিকচার নয়। তাই আইফোন ৮ রিলিজ হওয়ার পরে ঠিক এমনই দেখতে হবে এটা ভাবার কোন কারন আপাতত নেই। 

নতুন ডিসপ্লে এবং ডিজাইন

আমরা সবাই জানি যে অ্যাপল এর রিলিজ করা প্রত্যেকটি আইফোনের ডিজাইন ৮০% একই। শুধুমাত্র পার্থক্য লক্ষ্য করা যায় ডিসপ্লে সাইজ এবং ফোনের কালারে।  এবার নতুন আইফোনের পেছনের ডিজাইনের সাথে আগের বছরের আইফোনের অনেকটাই মিল রাখা হবে। শুধুমাত্র পার্থক্য দেখা যাবে ক্যামেরা সেন্সর পজিশনে যেটি এর আগে দেওয়া হয়েছিল দুটি ক্যামেরা পাশাপাশি রেখে এবং এবার দেওয়া হবে উপরে-নিচে রেখে, যাদের মাঝখানে থাকবে ফ্ল্যাশ লাইট।

এছাড়া এবার নতুন আইফোনে থাকছে বেজেল-লেস ডিসপ্লে যা আমরা ইতিপূর্বেই গ্যালাক্সি এস৮, এলজি জি৬ এবং শাওমি মি মিক্স ডিভাইসে দেখেছি। এবার এজ টু এজ ডিসপ্লে আসছে আইফোনেও। যেসব আইফোন ইউজাররা বেজেল-লেস ডিসপ্লে এবং আইওএস এর মজা একসাথে উপভোগ করতে চান, তাদের জন্য এটাই হবে আইফোন ৮ এর বেস্ট ফিচার।

ওয়্যারলেস চার্জিং

সম্ভবত আমরা বাংলাদেশের মানুষরা এই ফিচারটি খুব বেশি ইউজ করিনা। এই ফিচারটির সাহায্যে আপনি আপনার স্মার্টফোনটি কোনোভাবে তার দ্বারা সংযুক্ত করা ছাড়াই আপনার ফোনে চার্জ দিতে পারবেন।

এই ফিচারটি আরো অনেক অন্যান্য ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনে আছে। কিন্তু আইফোনে এই ফিচারটি কখনোই ছিল না। আশা করা যায়, আপকামিং আইফোন ৮ এ এই ফিচারটি থাকবে।

নতুন ধরনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর/ আইরিশ স্ক্যানার

সাধারন্ত সব স্মার্টফোনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকে ফোনের পেছনে মাঝখানের দিকে অথবা ফোনের সামনের দিকে মেইন ডিসপ্লের নিচের খালি জায়গায়। আইফোনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সাধারনত স্ক্রিনের নিচের খালি জায়গায় হোম বাটনের সাথে এম্বেড করা থাকে যেটাকে অ্যাপল " টাচ আইডি " নাম দিয়েছে।

কিন্তু এবারের নতুন আইফোনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে স্ক্রিনের নিচে। বেজেল-লেস ডিস্প্লে হওয়ায় স্ক্রিনের নিচে কোন খালি জায়গা থাকছে না। তাই যদি সামনের দিকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দিতেই হয় তবে সেটা দিতে হবে মেইন ডিসপ্লের নিচে হাইড করা অবস্থায়। যদিও সত্যি এমনটা করতে পারবে কিনা অ্যাপল এই বিষয়ে নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি।

কারন, ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেওয়া অসম্ভব কিছু না হলেও, এই মুহূর্তে অ্যাপলের কাছে এটা করার মত যথেষ্ট উন্নত প্রযুক্তি আছে কিনা সে বিষয়ে কেউই নিশ্চিত নয়। এছাড়া আইফোন ৮ এ নতুন এক ধরনের সিকিউরিটি থাকতে পারে যার নাম " আইরিশ স্ক্যানার"।

এটি অ্যাপল এর কাছে নতুন হলেও এই সিকিউরিটি ব্যাবস্থাটি ইতোমধ্যে লুমিয়া ৯৫০ এবং গ্যালাক্সি নোট ৭ (RIP) এবং গ্যালাক্সি এস৮ ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে।

এর মাধ্যমে আপনি আপনার চোখ স্ক্যান করে ফোন আনলক করতে পারবেন। আর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নিয়ে অনিশ্চয়তার ব্যাপারটা থেকেই যায় কারন স্যামসাঙও এমন কিছু একটা করার চেষ্টা করেছিল তাদের গ্যালাক্সি এস৮ এর সাথে। কিন্তু অবশেষে তারা সফল হয়নি এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ফোনের পেছনের দিকেই রেখেছে।

নতুন এবং আরো বেশি পাওয়ারফুল প্রোসেসর

অ্যাপল এর প্রায় প্রত্যেকটি প্রসেসরই পৃথিবীর অন্যতম পাওয়ারফুল একেকটি প্রসেসর। গত বছরে আইফোন ৭ এবং ৭ প্লাসে ব্যবহার করা  Apple A10 প্রসেসর এখনো পর্যন্ত পৃথিবীর সবথেকে ভাল এবং সবথেকে বেশি পাওয়ারফুল প্রসেসরগুলোর মধ্যে একটি।

অ্যাপল চাইলে তাদের নতুন ফোনদুটিতেও একই প্রসেসর ব্যবহার করতে পারত এবং তাতেও পারফরম্যান্স নিয়ে কোন কমপ্লেইন করার সুযোগ থাকত না। কিন্তু এবছরও অ্যাপল তাদের নতুন আইফোনের জন্য নতুন প্রোসেসর (A11) তৈরি করেছে যেটি আগের বছরের প্রসেসর এর থেকে আরো বেশি পাওয়ারফুল এবং একই সাথে ব্যাটারি ফ্রেন্ডলি।

তাই আইফোন ৮ হবে আগের বছরের আইফোনের থেকেও অনেক বেশি ফাস্ট এবং ফ্লুয়িড।

এবার দেখে নিন অ্যাপল এর রিলিজ করা ৪ টি ডিভাইসের কোনটির স্পেকস কেমন হতে পারে :

ModelScreen SizeCPURAMBase StorageMax Storage
iPhone 7s4.7 inchesA11 Fusion2GB32GB256GB
iPhone 7s Plus5.5 inchesA11 Fusion3GB32GB256GB
iPhone 8 or XEither 5.2 or 5.8 inchesA11 Fusion3GB64GB256GB

তো এটাই ছিল অ্যাপল এর আপকামিং নতুন আইফোনের কিছু Rumors এবং এক্সপেকটেড ফিচারস। আবারো বলছি এসব কোন ফিচারেরই ১০০% নিশ্চয়তা নেই। আইফোন ৮ কি কি নতুন ফিচার নিয়ে আসে তা জানার এবং দেখার জন্য আমাদেরকে আইফোন ৮ এর লঞ্চ ইভেন্ট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

আজকের টিউন এখানেই শেষ করছি। আশা করি টিউনটি আপনাদের ভাল লেগেছে। টিউন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই টিউনমেন্ট করে জানাবেন। ভাল থাকবেন।

Ads by Techtunes - tAds
টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

You must be logged in to post a Tumment.