Ads by Techtunes - tAds
Ads by Techtunes - tAds
Akhoni.com - Place for The Best Deals
  • 41 টিউন

আন্তর্জাতিক পুরস্কার বিজয়ী বাংলাদেশি সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এবং ইন্টারনেট মার্কেটিং প্রতিষ্ঠান ডেভসটিম লিমিটেডের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান "ডেভসটিম ইনস্টিটিউট"। দক্ষ প্রশিক্ষক দ্বারা হাতে কলমে ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরণের স্কিল ডেভেলপমেন্ট প্রশিক্ষণ দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। বিস্তারিত-http://devsteaminstitute.com/

8 মাস 4 সপ্তাহ আগে

ডেভসটিম ইন্সটিটিউটে প্রফেশনাল ব্লগিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং প্রশিক্ষণ। আপনার আসনটি আগেভাগে বুকিং করে রাখুন

Ads by Techtunes - tAds
Sheraponno

এটি একটি Sponsored টিউন। এই Sponsored টিউনটির নিবেদন করছে 'DevsTeam Limited'
Sponsored টিউন by Techtunes tAds | advertising@techtunes.com.bd

অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ার অন্যতম উপায় হচ্ছে ব্লগিং করা, বাংলাদেশ থেকেই এখন প্রচুর তরুণ-তরুণী ব্লগিংয়ের মাধ্যমে নিজেদের স্মার্ট ক্যারিয়ার নিশ্চিত করেছেন। ব্লগিং থেকে প্রতিমাসে ৩ থেকে ৪ হাজার ডলার আয় করছেন এমন সফল ব্লগারের সংখ্যাও এখন অনেক।

ইন্টারনেটে আয়ের বিশাল এ ক্ষেত্রটিতে আমাদের দেশের তরুণরা যুক্ত হতে পারছে না কেবল সঠিক গাইডলাইনের অভাবে। অনেকে বিচ্ছিন্নভাবে So called গুরু দের কাছ থেকে ব্লগিং থেকে আয় করা শিখলেও শেষ পর্যন্ত সফল হতে পারেন না কেবল গোপন সব টেকনিকগুলো না জানার কারণে। বিশাল এ কাজের ক্ষেত্রটিতে এগো তে গেলে আপনাকে কৌশুলী হতেই হবে, জানতে হবে পরীক্ষিত সব উপায়।

ব্লগিং আর অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

ব্লগিংয়ের মাধ্যমে কেবল টাকা নয়, পাওয়া যায় বিপুল সম্মানও। আন্তর্জাতিক বিশ্বে ব্লগারদের সাংবাদিক হিসাবেও এখন গণ্য করা হয়। স্মার্ট ক্যারিয়ার হিসাবে তাই ব্লগিং এখন ওয়েব উদ্যোক্তাদের মধ্যে 'হট-কেক'!

ব্লগিংয়ের মাধ্যমে অনেক উপায়েই আয় করা যায়, তন্মধ্যে গুগল অ্যাডসেন্স আমাদের দেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় উপায়। সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের এ বিজ্ঞাপন প্লাটফর্মের মাধ্যমে প্রতিমাসে ১০ হাজার ডলারের উপরে আয় করছেন এমন ব্লগারের সংখ্যাও বাংলাদেশে রয়েছে।

গুগল অ্যাডসেন্স এবং সরাসারি বিজ্ঞাপন স্পেস বিক্রি সহ আরও নানান উপায়ে আয় করতে পারেন একজন ব্লগার। নিজের ব্লগের মাধ্যমে একটি নির্দিষ্ট পণ্যকে সুপারিশ করেও (রেফার) আয় করার সুযোগ রয়েছে একজন ব্লগারের, যাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়। ইন্টারনেট থেকে ভালো আয়ের ক্ষেত্রে সবচেয়ে উপযোগী মাধ্যম এই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। এই মাধ্যমে আপনি অন্য যেকোনো আয়ের উপায় যেমন অ্যাডসেন্স থেকেও বেশি আয় করতে পারবেন।

যারা একেবারে নতুন, তাঁদের জন্য আরেকটু একটু বিস্তারিত বলতে হয় বৈকি! অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হলো এমন একটি টাকা আয়ের মাধ্যম যাতে আপনি অন্য একটি প্রতিষ্ঠানের পণ্যের মার্কেটিং করবেন এবং উক্ত পণ্যটি বিক্রি করবেন।

Blogging & Affiliate Market trainging in bangladesh

ধরুন আপনি আপনার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ব্লগে একটি পোস্ট লিখলেন, 'স্লিম এবং আকর্ষণীয় হওয়ার ১০ কিলার উপায়!' এখন এ পোস্টে আপনি কিছু স্লিম হওয়ার ঔষধি বা সাপ্লিমেন্টারিকে সাজেস্ট করতে পারেন। আর পণ্যটি কোথা থেকে একজন পাঠক কিনবেন তাঁর জন্য একটি ওয়েবসাইটের লিংকও ধরিয়ে দিলেন পোস্টে। যেহেতু একজন পাঠক আপনার এ পোস্টটি পড়বেন স্লিম এবং আকর্ষনীয় হওয়ার জন্য, তাই একজন লেখক যে ঔষধি বা সাপ্লিমেন্টারি তাঁকে সাজেস্ট করবেন তা কেনার যথেষ্ঠ সম্ভাবনা রয়েছে। এখন উক্ত পাঠক যদি আপনার অ্যাফিলিয়েট লিংকের মাধ্যমে ঐ পণ্য বা সেবা কিনে থাকেন, তাহলে আপনি একটি নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন পাবেন। আপনার মার্চেন্ট অর্থাৎ আপনি যার পণ্য বিক্রি করছেন তিনি আপনাকে পেপাল অথবা অন্য কোনো মাধ্যমে আপনার কমিশন পরিশোধ করবেন।

ব্লগিং আর অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য একজন ওয়েব উদ্যোক্তাকে ডোমেইন হোস্টিং কেনা থেকে শুরু করে ব্লগ সেটআপ করা, কিওয়ার্ড রিসার্স করা, প্রোডাক্ট রিসার্স করা, কনটেন্ট লেখা, সেলস পেজ ডিজাইন করা, এসইও করা এবং কিলার কনভার্সন রেট বানানোর উপায়গুলো জানতে হয়। ডেভসটিম ইনস্টিটিউটট (ডেভসটিম লিমিটেডের একটি সিস্টার কনসার্ন) আগ্রহী ওয়েব উদ্যোক্তাদের জন্য এই সমস্ত বিষয়গুলো হাতে কলমে শেখানোর জন্য আয়োজন করেছে ব্লগিং এবং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে তিন মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণের। লেখালেখি ও অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে যারা নিজেদের ক্যারিয়ার গড়তে চান তাদের কথা মাথায় রেখেই এ প্রশিক্ষণের সিলেবাস প্রণয়ন করা হয়েছে। এ বিষয়ক প্রকৃত প্রফেশনালরাই এ প্রশিক্ষণে জানাবেন তাদের সফলতার রহস্যগুলো-উপায়গুলো!!

কারা শিখতে পারবেন?

ইন্টারনেট সংক্রান্ত জ্ঞান আছে, লেখালেখিতে আগ্রহ আছে, ইংরেজি পড়তে বুঝতে পারেন এমন যে কেউ এ প্রশিক্ষণে অংশ নিতে পারেন। যাদের ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে আয়ের ইচ্ছা আছে কেবল তাদের জন্যই এ প্রশিক্ষণ।

কি কি শেখানো হবে

কিভাবে নিজের ব্লগসাইট তৈরি করতে হবে। গুগল অ্যাডসেন্সে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে, কিভাবে পোস্ট লিখতে হবে, কিভাবে পোস্টের আইডিয়া জেনারেট করতে হবে, কিভাবে অ্যাড বসাতে হবে, কিভাবে পোস্ট লিখলে সেটিতে ভিজিটর বেশি পাওয়া যাবে, কিভাবে গুগল অ্যাডসেন্সের টাকা বাংলাদেশে আনতে হবে, কিভাবে নিশ ব্লগ তৈরি করে ব্যবসা করা যাবে এবং কিভাবে অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট ব্যন হওয়া থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে এমন পরীক্ষিত শত শত টিপস। আর সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করার অ্যাডভান্স সব টিপস তো আছেই।

এছাড়া প্রোডাক্ট রিসার্স (চাহিদা সম্পন্ন প্রফিট এবল পণ্য নির্বাচণ করবেন), কিওয়ার্ড রিসার্স (সার্চ ইঞ্জিন থেকে টার্গেটেড ভোক্তা প্রোডাক্ট বেস কিওয়ার্ড নির্বাচন ), ব্লগ বা ওয়েব সাইট রেডি করা (সার্চ ইঞ্জিন ফ্রেন্ডলি ব্লগ বা ওয়েব সাইট তৈরি করা), প্রোডাক্ট রিভিউ লিখা ( কাস্টমারকে পণ্য প্রদর্শণ ও লেখনির মাধ্যমে পণ্য কেনায় উৎসাহিত করতে), সাইটে টার্গেট ট্রাফিক আনার (এসইও, এসএমএম etc এর মাধ্যমে টার্গেটেড ট্রাফিক আনার ব্যবস্থা) সিস্টেমেটিক প্রয়োজনীয় সব বিষয় তো রয়েছেই। কিলার সব উপায়গুলো নিয়ে এ প্রশিক্ষণটির সিলেবাস। প্রশিক্ষন চলাকালীনই রয়েছে বাস্তব অভিজ্ঞতা দিতে পারবে এমন সব প্রজেক্ট!

এটি শিখলে লাভ

যারা ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে স্বাবলম্বী এবং Self Dependent হতে চান তাদের জন্যই এ কোর্স। এটি শিখে আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী প্রতি মাসে ৫০০ ডলার থেকে ৫ হাজার ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। টাকা আয়ের মাধ্যম হিসাবে আমাদের দেশে ইতিমধ্যে ফ্রিল্যান্সিং বেশ জনপ্রিয়, তবে এটি হচ্ছে একজন বায়ারকে কাজ করে দেয়ার মাধ্যমে টাকা আয়। কাজ করলে আয় আছে, নইলে নয়!

তবে ব্লগিং বা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে একবার পরিশ্রম করলে সেটির ফলাফল দীর্ঘ মেয়াদী সময় ধরে পাওয়া যায়, অর্থ্যাৎ আয় হতে থাকে অনেকদিন পর্যন্ত। এজন্য ফ্রিল্যান্সিংয়ের চেয়ে ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং অনেকটা নিরাপদ, নিশ্চিত। এ কোর্সটি করার পর কেবল ব্লগিং আর অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের উপর যদি কেউ ফ্রিল্যান্সিং করতে চায় সে সুযোগও রয়েছে। ওডেস্ক, ফ্রিল্যান্সার এবং ইল্যান্সারের মতো মার্কেটপ্লেসগুলোতে এ সংক্রান্ত প্রচুর প্রজেক্ট রয়েছে।

কারা শেখাবেন?

বাংলাদেশে ব্লগিং ও অ্যাফিলিয়েটের মাধ্যমে আয় করছেন এমন মানুষের তালিকা করলে অন্যতম শীর্ষ অবস্থানে আছেন এমন ব্লগাররাই এ কোর্সটি পরিচালনা করবেন।

প্রশিক্ষণ ফি কত এবং ক্লাসের সময় সূচী!

দু'মাসের তাত্বিক প্রশিক্ষণ এবং এক মাসের রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট সহ মোট প্রশিক্ষন ফি: ১৫,০০০ টাকা। এছাড়া লাইফটাইম সাপোর্ট সুবিধা পাবেন প্রত্যেক শিক্ষার্থী। আরোও বিস্তারিত জানতে চাইলে বা ইভেন্ট সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে ইভেন্ট ওয়ালে করতে পারেন। আলোচনার জন্য যোগ দিতে পারেন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক গ্রুপে।

ডেভসটিম সোসিয়াল নেটওয়ার্ক

আমাদের অফিসের ঠিকানা:

ডেভসটিম লিমিটেড

স্যুট# ১২১২, লেভেল#১২, মাল্টিপ্লান সেন্টার

৬৯-৭১ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা - ১২০৫

ফোনঃ ০১৯১১-৪৬৪৭১০, ০১৮১২-১৫৪৪৫৯

তবে আসন সংখ্যা সীমিত। আপনার আসনটি আগেভাগে বুকিং করে রাখুন।
আপডেটেড থাকার জন্য আমাদের ফলো করবেন আশা করি। :-)

এটি একটি Sponsored টিউন। এই Sponsored টিউনটির নিবেদন করছে 'DevsTeam Limited'
Sponsored টিউন by Techtunes tAds | advertising@techtunes.com.bd

Sheraponno

24 টি টিউমেন্ট on “ডেভসটিম ইন্সটিটিউটে প্রফেশনাল ব্লগিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং প্রশিক্ষণ। আপনার আসনটি আগেভাগে বুকিং করে রাখুন

  1. vai..kothata kharap na..but taka -ta aktoo..beshi hoye gelona?????

  2. vai apanara eta chara r ki ki course koran…please tell me.

    • @surojit saha: প্রফেশনাল ব্লগিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং প্রশিক্ষণ ছাড়াও আমাদের আরো ৫টি প্রশিক্ষণ রয়েছে। এগুলো হলো- অ্যাডভান্সড সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইন, ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপমেন্ট, জুমলা ডেভেলপমেন্ট ও ইমেইল মার্কের্টিং। এছাড়া আরো কয়েকটি প্রশিক্ষণ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের।

  3. Haa vai course ta amar khub korte ichche korchhe ….But tk r problem . Ai student boyose basa theke ato tk bear kora ak shathe possible na . But amader jonno jodi amon kono babostha rakha jeto joti class kora obosthay tk 2-3 kisti te amra dite partam , tobe ami mone kori amra jara projukti premi + student amader jonno course ti kora possible ..That means jodi first time vortite 5000/- tk rakhen .then porobortite 2 month e 5000/- kore amra pay korlam .Tobe amader jonno valo hoto.

    যাই হোক আমার এই কথা তে DevsTeam Institute কিছু মনে করবেন না । কেননা আমি প্রযুক্তি প্রেমী । আমি সব সময় চাই নতুন কিছু শিখতে ।।আপ্নারা যদি আমাদের শিখার সেই পথ কে সহজ করে দেন তবেই ত আমরা শিখবো ।
    আমি মনে করি আমার সাথে অনেকেই একমত হবেন ।
    আমি বিস্তারিত জানার জন্য আপনাদের দেয়া নাম্বারে ফোন করেছি , কিন্তু কোন সাড়া পেলাম না , তাই বাধ্য হয়ে এই কমেন্ট করলাম ………।।

    • @Md Arif Hossain: এই কোর্সটি করার পর আপনি নিজেকে প্রস্তুত করে ভালোভাবে কাজ শুরু করলেই এক মাসেই ৩০/৪০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়া আপনি ভেবে দেখুন, একটি পরীক্ষার ফি ১০/১৫ হাজার টাকার উপরেও রয়েছে। আপনি ১৫/২০ বছর ধরে লেখাপড়া করে, লাখ লাখ টাকা খরচ করে পরবর্তীতে চাকরির জন্য আবেদন করতে পারেন। কিন্তু এই কোর্সটি করেই আপনি ঐসব চাকরির বেতনের চেয়ে অনায়াসেই বেশিই আয় করতে পারবেন। এছাড়া একজন বিশেষজ্ঞ প্রশিক্ষক তার মূল্যবান সময় নষ্ট করে তিনমাস ধরে আপনাকে ক্লাস করাবেন, গাইডলাইন দিবেন, আজীবন সাপোর্ট দিবেন। সেই হিসেবে আমাদের কোর্স ফির পরিমান অনেকটাই অনুকূলে। আর হ্যাঁ, কারো সমস্যা থাকলে আমরা দুইটা ইনস্টলমেন্টে কোর্স ফি নিয়ে থাকি। ক্লাস শুরুর আগে ৫০ শতাংশ ও পরবর্তী ১ মাসের মধ্যে আর ৫০ শতাংশ।
      হয়তোবা ব্যস্ততার কারণে কলটি রিসিভ করা সম্ভব হয়নি। যাই হোক, ডেভসটিম ইনস্টিটিউটে আপনাকে স্বাগতম.. আশাকরি সঙ্গেই থাকবেন। :)

  4. সহমত !
    কিস্তিতে ফি দেওয়ার কোন সিস্টেম আছে নাকি ? তাহলে আমাদের মত স্টুডেন্ট রা উপকৃত হত । ধন্যবাদ ।

    • @jibon11: কারো সমস্যা থাকলে আমরা দুইটা ইনস্টলমেন্টে কোর্স ফি নিয়ে থাকি। ক্লাস শুরুর আগে ৫০ শতাংশ ও পরবর্তী ১ মাসের মধ্যে আর ৫০ শতাংশ। ডেভসটিম ইনস্টিটিউটে আপনাকে স্বাগতম। :)

  5. আসলেই আপনারা টাকার পরিমাণটা অনেক বেশি নিয়ে ফেলছেন। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ১৫,০০০ টাকা দেয়া বেশ কষ্টসাধ্য ব্যাপার। আপনারা দেশের গৌরব, আপনাদের উচিত দেশের মানুষের প্রতি সহানুভূতিশীল হওয়া। আমি আপনাদের কোন গেয়ান দিতে আসি নি বা সেই যোগ্যতাও আমার হয়ত নেই, কিন্তু এতো টুক বোঝার ক্ষমতা হয়েছে, ‘সেবার মূল্য এতো হওয়া উচিত নয়’। আমারা তো একদিন সবাই মরবো, কিন্তু মৃত্যুর আগে যদি নিজেদেরকে মানব সেবায়/কল্লানে যতটুকও পারা যায় নিয়োজিত রাখা যায় ততই মঙ্গলের, কথা গুলো মন থেকে ভাববার চেষ্টা করবেন, যে আমি কি বোঝাতে চেয়েছি। আমি জানি যে, আপনাদের সাহায্যে অনেক বেকার মানুষ দারিদ্র্যতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পেয়েছে, কিন্তু এখনো অনেক মানুষ পরে আছে, যারা কিনা দারিদ্র্যতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে চায়। দয়া করে কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন, আমি আবারও বলছি আপনাদের হেয় করার জন্য এই কমেন্ট করিনি।

  6. খুব ইচ্চে ছিলো .কিন্তু টাকার অংকটা দেখে থেমে গেলাম.

    • @sakhu88: এই কোর্সটি করার পর আপনি নিজেকে প্রস্তুত করে ভালোভাবে কাজ শুরু করলেই এক মাসেই ৩০/৪০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়া আপনি ভেবে দেখুন, একটি পরীক্ষার ফি ১০/১৫ হাজার টাকার উপরেও রয়েছে। আপনি ১৫/২০ বছর ধরে লেখাপড়া করে, লাখ লাখ টাকা খরচ করে পরবর্তীতে চাকরির জন্য আবেদন করতে পারেন। কিন্তু এই কোর্সটি করেই আপনি ঐসব চাকরির বেতনের চেয়ে অনায়াসেই বেশিই আয় করতে পারবেন। এছাড়া একজন বিশেষজ্ঞ প্রশিক্ষক তার মূল্যবান সময় নষ্ট করে তিনমাস ধরে আপনাকে ক্লাস করাবেন, গাইডলাইন দিবেন, আজীবন সাপোর্ট দিবেন। সেই হিসেবে আমাদের কোর্স ফির পরিমান অনেকটাই অনুকূলে।
      সেহেতু থেমে যাবেন কেনো? এগিয়ে যান সেটাই কামনা করি…..

  7. ধন্যবাদ আপনাদের , আমার সাথে একমত হবার জন্য । আমিও চাই কোর্স তা করতে , কিন্তু বুঝেনি ত ????/

  8. ভাই টিউন টি পড়ে সুন্দর লাগলো .সবার অনেক উপকারে আসবে .আমার একটা প্রশ্ন ছিলো -আমি টেকটিউনস থেকে শিখে এতদুর (https://www.odesk.com/users/~~ab8f0f61048e433c) এসেছি .
    আমি বর্তমানে ওয়েব ডেভোলাপার শেখার চেষ্টা করছি .
    আমাকে সহযোগিতা করছে -ওয়েব ডেভোলাপার শেখার বাংলা বই , W3school, Note Pad++ এবং Adobe Dream Weaver CS5.
    আমার এখন কি করা উচিত ?
    আমি এখন কিভাবে এগিয়ে যাবো ?

  9. অপ্রাসঙ্গিক টিউমেন্ট গুলো মুছে দেওয়া হলো। স্পন্সরড টিউনে শুধু মাত্র স্পন্সরড টিউনে উল্লেখিত সার্ভিস নিয়ে টিউমেন্ট করার জন্য টিউমেন্টরদের অনুরোধ করা হলো। ধন্যবাদ।

  10. 1 month e sure 30000 tk income korte parbo surity dile amar course korte osubidha nai.

  11. আমার খুব ইচ্ছে ছিল এই course করার কিন্তু একজন ছাত্র হিসেবে একালীন বয়্য করা impossible(বাংলাদেশের সব স্কুলের পরীক্ষার ফী ১০,০০০/= নয়) internet আয় বিষয়ক কোস্র গুলো প্রশিক্ষণ বয়্য বেশী। why? নতুন ব্যবসায়ের কারনে? আমার মনে হয় কোস্র ফী কমালে আপনার ছাত্র বেশী পাবেন আর লাভোবান বেশী হবেন। আর আমার মত কিছু সল্প আয়ের ছেলে মেয়েরা প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবে। আশা করি >>>>>>>>>>>>>>>>>

  12. এফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে ইদানিং অনেকের ব্যাপক আগ্রহ দেখা যাচ্ছে
    আমাদের ছেলেরা ভালই করছে
    চালিয়ে যান