ADs by Techtunes tAds
ADs by Techtunes tAds

ওয়েববেইজড এফটিপি ক্লায়েন্ট, নেট টু এফটিপি

এফটিপি বা ফাইল ট্রান্সফার প্রোটোকলের ব্যবহার আমরা প্রায় সবাই জানি। একটি সাইটের সমস্ত ফাইল সংরক্ষিত থাকে এফটিপিতে। আর সমস্ত কন্টেন্ট বা বিশেষ করে তথ্যাদি সংরক্ষিত থাকে ডাটাবেসে। আজকে আমি একটি অনলাইন এফটিপি ক্লায়েন্ট সম্বন্ধে আলোচনা করব, যা আপনি বিনামূল্যে বিনা ডাউনলোডে অনলাইনে আপনার ব্রাউজারের মাধ্যমেই ব্যবহার করতে পারেন খুবই সহজে। আমাদের আজকের আলোচ্য এফটিপি ক্লায়েন্টের নাম, নেট টু এফটিপি।

ADs by Techtunes tAds

নেট টু এফটিপি প্রথমত একটি অনলাইন এফটিপি ক্লায়েন্ট যা ব্যবহার করে আপনি নির্বিঘ্নে নির্দ্বিধায় আপনার এফটিপিতে ফাইল আপলোড, মুছা বা আরো অনেক কাজ করতে পারেন খুবই সহজে। এটা খুবই ব্যবহারবান্ধব এবং এটি কাজও করে খুব দ্রুত। সামান্য স্পীডের ইন্টারনেট সংযোগেই আমি এটিকে দ্রুতগতিতে কাজ করতে দেখেছি। আসুন জেনে নিই, কী কী কাজের কাজী আজকের এই নেট টু এফটিপি।

ফাইল আপলোড

একটি এফটিপি ক্লায়েন্টের মূল কাজই হচ্ছে ফাইল আপলোড করা। তবে একেক ক্লায়েন্ট এ কাজটি একেকভাবে করে থাকে। ভিন্নতাটা এখানেই। আপনি যে কোম্পানীতে আপনার সাইট হোস্ট করেছেন, সেই কোম্পানীই আপনাকে এফটিপি ব্যবহারের জন্য এফটিপি ক্লায়েন্ট দিবে (অনলাইন)। যেমন, আপনি যদি ফিফটি ওয়েবস এর কাছ থেকে পঞ্চাশ মেগাবাইটের ফ্রি হোস্টিং নিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে ফিফটি ওয়েবস এর নিজস্ব এফটিপি ক্লায়েন্ট ব্যবহার করতে দেয়া হবে যার দ্বারা আপনি আপনার এফটিপিতে একসেস নিতে পারবেন। কিন্তু আমরা তখনই সমস্যার সম্মুখীন হই, যখন অনেকগুলো ফাইল একসাথে আপলোড করতে হয়। একসাথে অনেক ফাইল আপলোড করতে হলে ফিফটি ওয়েবস বা এজাতীয় কোম্পানীগুলোর নিজস্ব এফটিপি ক্লায়েন্টে একটি একটি করে প্রচুর সময় আর শ্রম ব্যয় করে আপলোড করতে হবে। এখানে আপনার ধৈর্যের সীমা অতিক্রম হয়ে যাবার সম্ভাবনাই বেশি। আর যখন অন্য একটি ক্লায়েন্ট আপনাকে ফ্ল্যাশ আপলোড ও জাভা আপলোডের মত অসাধারণ সব সুবিধা দিচ্ছে, তখন আপনার এই শ্রম ব্যয় করাটা পুরোপুরিই বৃথা।
হ্যাঁ, নেট টু এফটিপির আছে জাভা আপলোড ও ফ্ল্যাশ আপলোড এর ব্যবস্থা যার সাহায্য নিয়ে আপনি এক নিমিষে প্রচুর সংখ্যক ফাইল আপলোড করতে পারেন। আপনাকে হয়ত একই সময় অপেক্ষা করতে হবে আপলোড হবার জন্য। কিন্তু এখানে সুবিধা হচ্ছে আপনি একেবারেই সবগুলো ফাইল সিলেক্ট করে দিতে পারবেন। বারবার একটি একটি করে ফাইল সিলেক্ট করে আপলোড বাটনে ক্লিক করার মত অযথা শ্রম বা সময় নষ্ট, এই দুইটির কোনটাই হবে না। তবে অপশনটি ব্যবহার করার জন্য আপনার কম্পিউটারে অবশ্যই জাভা বা ফ্ল্যাশ প্লেয়ার ইন্সটল করা থাকতে হবে।

ইঞ্জিন ইন্সটলেশন

কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার, জুমলা বা বিখ্যাত ব্লগিং প্ল্যাটফর্ম ওয়ার্ডপ্রেস, এ দুটোর যেকোনটি যদি আপনি আপনার সাইটে ব্যবহার করতে চান, তাহলে করণীয় হচ্ছে আগে তাদের সাইট থেকে লেটেস্ট সংস্করণটি ডাউনলোড করে আবার একটি একটি করে নিজের সাইটে এফটিপি ব্যবহারের মাধ্যমে আপলোড করা। নেট টু এফটিপি ব্যবহার করে আপনি হয়তো একটি একটি করে নয়, বরং একবারেই সবগুলো ফাইল আপলোড করে দিলেন। কিন্তু এখানে আপনার সময় নষ্ট হচ্ছে দুইবার। একবার মূল ফাইল ডাউনলোড করা, দ্বিতীয়বার আবার আপলোড করা।
সহজ সমাধান দিচ্ছে নেট টু এফটিপি। পছন্দের ডিরেক্টরিতে গিয়ে ইন্সটল বাটনটি ক্লিক করলেই আপনার ফাইলের ঐ ডিরেক্টরিতে একটি ইন্সটল করার পেজ (পিএইচপি দ্বারা নির্মিত) আপলোড হবে। নেট টু এফটিপি আপনাকে একটি লিঙ্ক দিবে। ঐ লিঙ্কে ক্লিক করলে আপনি আপনার পছন্দমত জুমলা, ওয়ার্ডপ্রেসসহ বেশকিছু জনপ্রিয় ও বিখ্যাত সফটওয়্যার/কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার ইত‌্যাদি সরাসরি আপনার এফটিপিতে আপলোড করতে পারেন। এর দ্বারা আপনি রেহাই পেতে পারেন একবার ডাউনলোড করা থেকে, আরেকবার আপলোড করা থেকে।
জুমলা বা ওয়ার্ডপ্রেস (ও অন্যান্যগুলো) এর নতুন কোন সংস্করণ বের হওয়ামাত্রই নেট টু এফটিপি তাদের সার্ভারে মূল ফাইলটি আপলোড করে রাখে। পরবর্তীতে যখন আপনি আপনার পছন্দের বা প্রয়োজনীয় ফাইলটির জন্য অর্ডার করেন, তখন তারা তাদের সার্ভার থেকে আপনার এফটিপিতে সংশ্লিষ্ট ফাইলটি ট্রান্সফার করে মাত্র। এতে যদিও সময় একটু বেশি লাগে, তবে আপনার শ্রমটা বেঁচে যায়। এটাও বা কম কীসে!

জিপ আর্কাইভ আনজিপ করা

এতক্ষণে নিশ্চয়ই অনেকের মনে প্রশ্ন জেগে গেছে যে, নেট টু এফটিপি তো জুমলা বা ওয়ার্ডপ্রেসের জিপ করা আর্কাইভ আমার এফটিপিতে ট্রান্সফার করে। তাহলে আমি সেটা আনজিপ করব কীভাবে?

সবচাইতে আকর্ষণীয় বিষয় হচ্ছে এটাই যে, এই নেট টু এফটিপি এর অনলাইন সংস্করণটি জিপ ফাইল আনজিপ করার সুবিধা রেখেছে। এর দ্বারা আপনার এফটিপিতে রক্ষিত জিপ আর্কাইভটিকে আনজিপ করে আপনার পছন্দের ডিরেক্টরি বা ফোল্ডারে রাখবে। উল্লেখ্য, আপনি নিজে যদি জুমলা বা ওয়ার্ডপ্রেস ডাউনলোড করে থাকেন, তাহলে তা আনজিপ না করেই নেট টু এফটিপি ব্যবহার করে বা অন্য যেকোন এফটিপি ক্লায়েন্ট ব্যবহার করে তা আপলোড করে দিন। পরে নেট টু এফটিপি ব্যবহার করে আপনি এই ফাইলটিকে আনজিপ করতে পারবেন।

উপরে বর্ণিত সুযোগ সুবিধা ছাড়াও নেট টু এফটিপির আছে আরো অনেক বৈশিষ্ট্য। এর দৃষ্টিনন্দন ও আকর্ষণীয় ইন্টারফেস আপনার পছন্দ হবেই। অনলাইন সংস্করণের পাশাপাশি নেট টু এফটিপির ডেস্কটপ সংস্করণও রয়েছে। চাইলেই আপনি তা ডাউনলোড করে নিতে পারেন আপনার কম্পিউটারে।

তবে আসুন দেখে নেয়া যাক আজকের মূল বিষয়, নেট টু এফটিপি।

ADs by Techtunes tAds
Level 0

আমি মো. আমিনুল ইসলাম সজীব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 85 টি টিউন ও 202 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ইএক্সটি প্লোরারটা আরও দারুন, অনেক অপশন। তবে এটা হোস্টেড নয়। নিজে হোস্ট করে ব্যবহার করা যায়।
আমাকে বিভিন্নসময় বিভিন্ন জায়গা থেকে ফাইল ট্রান্সফার করতে হয়। এই টুলটির কথ জানা ছিল না। আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
প্রযুক্তিবিদ ভাইকে ধন্যবাদ।