ADs by Techtunes tAds
ADs by Techtunes tAds

লিনাক্সভ্রান্তি-১: লিনাক্স ব্যবহার অতিশয় কঠিন{একটি কপিপেস্ট টিউন}

ADs by Techtunes tAds

আমার অভিজ্ঞতা বলে যে লিনাক্স শব্দটার সাথে চার ধরনের মানুষ জড়িত থাকে — যারা কখনো লিনাক্সের নাম শুনেননি, যারা লিনাক্সকে ভয়াবহ ভালবাসেন, যারা লিনাক্স ব্যবহার করতে ভয় পান এবং যারা লিনাক্স নিয়ে উল্টোপাল্টা অমূলক কথা বলে বেড়ান। পয়লা দু’দলকে নিয়ে কোন সমস্যা হয়না। কিন্তু শেষের দু’দল একটির সাথে আরেকটি ওতোপ্রতোভাবে জড়িত। লিনাক্স নিয়ে বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণার উৎপত্তি সাধারণত শেষের এ দু’দল থেকেই ঘটে থাকে। এসব ভ্রান্ত ধারণার বশবর্তী হয়ে অনেকে লিনাক্স শব্দটি শুনলেই উল্টোদিকে দৌড় দেবার ধান্দায় থাকেন। তাই ভাবলাম এসব ভ্রান্ত ধারণাগুলোকে একহাত দেখে নেবার জন্য ধাপে ধাপে একটা সিরিজ বের করা দরকার। সেই ভাবনারই একটি ছোটখাট ফসল “লিনাক্সভ্রান্তি” সিরিজ। আমি চেষ্টা করব “লিনাক্সভ্রান্তি” সিরিজটিতে লিনাক্স নিয়ে প্রচলিত বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণাগুলোকে দূর করতে, যাতে করে লোকজন উল্টোদিকে না দৌড়ে অন্তত ঠিক দিকে দৌড়তে পারে। আর এ সিরিজটিতে “লিনাক্স” বলতে সামগ্রিকভাবে “উবুন্টু”কেই ধরা হচ্ছে/হবে।


অনেকেই বলে থাকেন যে লিনাক্স ব্যবহার খুব কঠিন। কিন্তু যখনই কাউকে জিজ্ঞেস করি যে লিনাক্স ব্যবহার কেন কঠিন — তখন আর কেউ সুস্পষ্টভাবে কিছু বলতে পারেনা। গাঁইগুঁই করে যে জিনিসটি শেষমেষ বেরিয়ে আসে সেটা হল — “লিনাক্স দেখতে জানি কেমুন কেমুন লাগে”! আরো সহজ করে বললে, লিনাক্স দেখতে কিংবা ব্যবহার পদ্ধতি উইন্ডোজের মত নয়। একটা অপারেটিং সিস্টেম দেখতে বা ব্যবহার পদ্ধতি আরেকটির মত নয় বলে অপারেটিং সিস্টেমটি কঠিন — ব্যপারটা যেন কেমন হয়ে গেল না! চার চাকার টয়োটার চেহারা বা ব্যবহার পদ্ধতি দুই চাকার হোন্ডার চেয়ে আলাদা হবে সেটাই তো স্বাভাবিক (যদিও দুটো দিয়েই যাতায়াত করা সম্ভব)। বরং এখানে যে ফ্যাক্টরটি কাজ করছে সেটা হল “অনভ্যস্ততা”। দু’চাকায় অভ্যস্ত চালককে চার চাকা চালাতে দিলে অনভ্যস্ততার কারণে প্রথম প্রথম তার একটু “কেমুন কেমুন” লাগবে। দিন কয়েক পরে অভ্যস্ত হয়ে পড়লে সবই ঠিক!

একসময়কার ভয়ালদর্শন লিনাক্স এখন রূপে-লাবন্যে অনেক কমনীয় (রমনীয়ও বলা যেতে পারে)। কিবোর্ড-মাউস দিয়েই লিনাক্সে সব কাজ করা যায়। মাউস ক্লিক করেই কোন প্রোগ্রামকে ক্লোজ-মিনিমাইজ-ম্যাক্সিমাইজ করা হয়, মাউস দিয়ে টিপেই বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন খোলা-পরিচালনা-বন্ধ করা হয়, কাজের সুবিধার জন্য সমস্ত অ্যাপ্লিকেশনকে ক্যাটাগরি অনুযায়ী সুবিন্যস্ত করা থাকে, রয়েছে আইকন ও মেনুবারের ব্যবহার, ফাইল ম্যানেজ করার জন্য রয়েছে ফাইল ব্রাউজার। তাছাড়া উবুন্টু ইন্সটল করলেই সাধারণ একজন ব্যবহারকারির প্রয়োজনীয় সমস্ত সফটওয়্যার; যেমন — সম্পূর্ণ অফিস স্যুট, বিট টরেন্ট ক্লায়েন্ট, চ্যাট ক্লায়েন্ট, ইমেইল ক্লায়েন্ট, ইন্টারনেট ব্রাউজার (ফায়ারফক্স), সোশ্যাল সাইট (ফেসবুক, টুইটার ইত্যাদি) ম্যানেজার, মাল্টিমিডিয়া প্লেয়ার, সিডি/ডিভিডি বার্নার, ফটোম্যানেজার, আঁকাআঁকি করার সফটওয়্যার, পিডিএফ রিডারসহ আরো অনেক কিছু ইন্সটল হয়ে যায়। অর্থাৎ একজন গড়পরতা সাধারণ ব্যবহারকারীকে কেবল মাত্র উবুন্টু ইন্সটল করলেই হল — সাথে সাথেই সব প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সহ তার সামনে পুরো সিস্টেম হাজির, আলাদা আলাদা করে তেমন কিছুই আর ইন্সটল করতে হয়না। হিসেব করলেতো দেখা যায় উবুন্টু বরং ব্যবহার করা সহজ, ব্যবহারকারীর অনেকটুকু ঝামেলা সে শুরুতেই কমিয়ে দিচ্ছে!

আমি ব্যক্তিগতভাবে সকল কাজেই উবুন্টু ব্যবহার করি। ইন্টারনেট ব্রাউজিং থেকে শুরু করে অফিস ডকুমেন্ট তৈরি, কিংবা গান শোনা থেকে শুরু করে ম্যাটল্যাবে সিমুলেশন করা — সবই করি উবুন্টুতে। দীর্ঘদিনের অনভ্যস্ততার কারণে উইন্ডোজের সামনে বসলে আমি উসখুস করতে থাকি, কারণ কাজের জিনিস কোনটাই হাতের কাছে পাইনা। একজন উইন্ডোজ ব্যবহারকারী যখন নতুন উবুন্টু ব্যবহার করতে আসেন তারও এই একই সমস্যাটা দেখা দেয়। এ সমস্যাকে তাই “কঠিন” না বলে বরং “অনভ্যস্ততা” বলাটাই বেশি মানানসই। আর মানুষ যে অভ্যাসের দাস সেটা কে না জানে! উবুন্টুতে অভ্যস্ত হওয়াটাও তাই কারো পক্ষেই অসম্ভব কিছু নয়। উবুন্টুর মোহনীয় রূপ আর সাবলীল ব্যবহারবান্ধবতার কারণে এই অসম্ভবের সম্ভব হবার সময়কালও কিন্তু অনেকটুকু কম হয়।

মোদ্দাকথা “ব্যবহার করতে কঠিন” — কথাটা অন্যের কাছ থেকে শুনে মেনে না নিয়ে বরং নিজেই একটু পরখ করে দেখুননা। এই পরখটুকু করতে উবুন্টু ইন্সটলও করা লাগবেনা, কেবল সিডি ইমেজ ডাউনলোড করে সেটা থেকেই লাইভ বুট করতে পারবেন। আপনার কম্পিউটারের কোন ফাইলে এতটুকু আচঁড়ও পড়বেনা! তারপর নিজেই সিদ্ধান্ত নিন, মাউস টেপার জ্ঞান সম্বল করে উবুন্টু (কিংবা লিনাক্স) ব্যবহার কতটুকু কঠিন!


এ'টি একটি সম্পূর্ণ কপিপেস্ট টিউন। যার মূল লেখক হচ্ছেন, শ্রদ্ধেয় আদনান কাইউম ভাইয়া। এই লেখাটি সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয়, কাইউম ভাইয়ার ব্যক্তিগত ব্লগসাইট http://adnan.quaium.comএ।

ADs by Techtunes tAds

ADs by Techtunes tAds
Level 0

আমি নীরব মাহমুদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 11 টি টিউন ও 210 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি অতি সাধারণ একাকী একজন মানুষ। প্রতিনিয়ত শিখছি একটু একটু করে। ভীষণ ছোট্ট একটা জগত আমার। প্রযুক্তির অসাধারণ অগ্রযাত্রা আর বিশ্বায়নের এই যুগে নিজের চরিত্রটাকে বড্ড বেমানান লাগে। তবুও, পথ চলি অবিরাম। নতুন কোন সুন্দর আলো ঝলমলে সোনালী প্রভাতের প্রতিক্ষায়।


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সহমত
    ধন্যবাদ ভাইয়া। প্রযুক্তি হোক উন্মুক্ত। ভালো থাকুন সবসময়। শুভ কামনা রইলো।
সুন্দর লিখেছেন
    মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ভাইয়া। তবে, মূলতঃ ধন্যবাদটুকু মূল লেখক কাইউম ভাইয়ার প্রাপ্য। প্রযুক্তির স্বাধীনতায় আমি বিশ্বাসী।। ভালো থাকুন সবসময়। শুভ কামনা রইলো।
বেশ কিছু দিন উবুটু & জানালা এক সাথে ব্যবহার করেছি।শেষে লিনাক্স ছাড়তে হয়েছে গেমের কারনে...:(
    Level 0
    লিনাক্সে বেশ কিছু গেম চলে......ওয়াইন ব্যবহার করে ইন্সটল করা যায়
    জানালায় ভালো আছেনতো?
    আবার জিগায় ;)@রুপালি গিটার
    @Walking Maan আর কয়দিন ভাই? ছাড়তে তো এক সময় হবেই। এইতো কপিরাইট এর নমনীয়তা শেষ হল বলে... এটাই ইংরেজদের জাদু, আগে free খাওয়ায় তাওপর সুদে আসলে উসূল করে।
ভাই,লিনাক্স আমার পিসিতে সেটাপ দেয়া আছে কিন্তু দিনে একবারো আমার লিনাক্সে ঢুকা হয়না। কারন কি জানেন? আমি প্রবাসি আর তাই আমি ইয়াহু মেসেনজার ইউজ করে ভিডিও চ্যাট করি। এখন আপনি বলেন লিনাক্সে এমন কোন অ্যাপলিকেশন আছে যার দ্বারা আমি ভিডিও চ্যাট করতে পারব? আমি জানি আপনি কোন উত্তর দিতে পারবেন না। টিটিতে এই উত্তর আমাকে কেউ দিতে পারে নাই।
    এইডা কি কইলেন ভাই? তাইলে গায়াচি আছে কি করার জন্য?
    @Saon A Menz: check this link out: http://gmailblog.blogspot.com/2010/08/use-linux-now-you-can-video-chat-too.html#
    Level 0
    কি যে বলেন...।আমি স্কাইপি ও ইয়াহু মেসেঞ্জার দুইটাই চালাই.......মিন্ট ১০ জুলিয়াতে........সাধারনত এখন আর উইন্ডোজ চালু দেয়া হয় না
ঠিক আছে, সবই ঠিক আছে, আমি নিজেও লিনাক্স-উবুন্টুতে যাইতে এক পায়ে খাড়া কিন্তু ঐখানে যে কিউবি মডেম সাপোর্ট করে না, এইডার কোন ব্যবস্থাতো কেউ কৈরা দেয় না.
    এ'টা কি বলেন ভাইয়া? আমি তো লিনাক্স মিন্ট থেকে কিউবী ব্যবহার করেই লিখছি। আপনি কোন কিউবীর কোন মডেমটা ইউজ করেন?
    ভাই ভাই ভাই আমারে কন প্লিজ ক্যামনে কিউবি মানে ওয়িমাক্স ইউএসবি মডেম চালানো যায়? bcs250 ডিভাইস চলবে?
    Level 0
    yupe, i also have the same problem, i am a banglalion wimax user & using USB modem, that's why i can't use linux, bro ,will u plz help me to let me know how can i use linux with wimax USB modem.
    চার্কুনা ছোট মডেম ইউজাই
Level 0
আমি লিনাক্স মিন্ট ইনস্টল করতে পারছি না।আমি আল্ট্রা আই এস ও দিয়ে মিন্ট পেনড্রাইভে বার্ন‍‌ করেছিলাম কিন্তু ফাইল করাপ্টেড দেখাচ্ছে।আামি কিভাবে মিন্ট ইনস্টল করতে পারব?এই সমস্যা উবুন্টু ইনস্টল করতে গিয়েও হচ্ছে।আমায় দয়া করে কেউ সাহায্য করুন।
    আমার টিউনটির শেষ অংশে মূল লেখকের সাইটের লিঙ্ক দেয়া আছে। সেখানে যেয়ে দেখতে পারেন। নিচের লিঙ্কগুলো থেকেও একবার সময় করে ঘুরে আসুন। আশা করছি, সব উত্তর পেয়ে যাবেন। ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য। শুভ কামনা রইলো।১ = http://forum.amaderprojukti.com/viewforum.php?f=42&start=0 ২ = http://www.linuxmint-bd.org/ ৩ = http://forum.linuxdesh.org/
    http://techtunes.com.bd/tips-and-tricks/tune-id/69388/যেকোন লিনাক্স আইএসও ইউএসবি তে ট্রানস্ফার করতে :)
    Level 0
    সবচেয়ে ভাল হয় unetbootin দিয়ে মেমরি কার্ড বা পেন্ড্রাইভে এক্সট্রাক্ট করে নিয়ে সেট আপ দেন। এভাবে বুট করেও সেট আপ দেয়া যায়। বুট ছাড়াও উইন্ডোজে সফটওয়ার ইন্সটল দেয়ার মত লিনাক্স ইন্সটল করা যায়।
Level 0
valo laglo vaia. Sobai jodi opensource soft and os use krto tahole valoi lagto
অভ্রনীল ভাইয়ের লেখাগুলো আসলেই জোশ।উনাকে অনুরোধ করেছি লিনাক্স ইন্সটলেশান থেকে নিয়ে শেষ পর্যন্ত টেকটিউন্স এ সিরিজি টিউন করার জন্য।উনার উত্তরের অপেক্ষায় আছি।ধন্যবাদ লেখাটা শেয়ারের জন্য।
    "বন্টু মিন্টুর গুষ্টি কিলাই" এইটা দেখেই লিনাক্স নিয়ে আগ্রহ শুরু, তারপর থেকে ছেড়ে দেইনি :D উনি আসলেই জোশ মানুষ
আমি তো মবিডেটা মডেম ইউস করি, এর কোন সমাঢান আছে কি? মিন্ট এ খুব মজা পাই। প্রাকটিস করছি। কিছুদিনের মধ্যেই এক্সপি ছেরে দিব। কিন্তু মডেম এর সমাঢান পাইনাই।
ভাই আমার তো দুর্দান্ত বড় বড় গেম ছাড়া একদিনও চলে না, কিন্তু এজন্য উবুন্টুতে তো শুধু Wine থাকলেই চলেনা, গ্রাফিক্স কার্ডের আবিজাবি কি জানই লাগে, তাই এটা একটা বড় সমস্যা। তাই আমি চাই কেউ একজন গ্রাফিক্স কার্ড ইত্যাদি সম্পূর্ণ অপটিমাইজ করে কিভাবে উবুন্টুতে এসব বড় গেম খেলা যায় তার একটা টিউন বের করা, তাহলে আমার মত অনেক গেম পিপাসু উপকৃত হবে।আরেকটা কথা, ওয়াইম্যাক্স এর USB Modem এর উবুন্টুতে চলার তো কোন সমাধান পাওয়া গেলনা। টেকটিউনস এ তো অনেক গুণী প্রোগ্রামার আছেন, তারা কি কোন সফটওয়্যার তৈরি করতে পারেন না, যাতে দেশের অগণিত মানুষ চরমভাবে উপকৃত হয় এবং লিনাক্স ব্যবহার করতে শুরু করে? আশা করছি গুণীজনরা বিষয়টি ভেবে দেখবেন।
ভাল-ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।
ভাই linux install করার পর wlan driver কিভাবে কাজ করাতে হয়? wlan এর কি কোনো driver আছে? আমার windows এ wifi কাজ করে, কিন্তু Linux ubuntu তে wifi on হয় না। ANY SOLLUTION?