Quantcast

ফ্রিলেন্সিং গাইড ২০১৮ আপডেট [পর্ব-০৪] :: প্রথমেই ব্যবসা করতে যাবেন না ক্লায়েন্টের সাথে ভালো সম্পর্ক গড়ুন

0 টিউমেন্টস
1,207 দেখা
জোসস করেছেন
0 0 0 0
আউটসোর্সিং

ফ্রিলেন্স মার্কেটে নতুনদের কাজ না পাওয়ার অন্যতম একটা কারণ হলো প্রথমেই তারা ক্লায়েন্টকে তাদের কাষ্টমার ভাবতে শুরু করেন কিংবা লাভ কত হলো সেটা নিয়ে হিসেব করেন। কিন্তু এটা ভুল প্রদক্ষেপ। আমি নতুন অবস্থায় যখন ওয়েব ডেভলাপিং শিখলাম তখন কাজ জানা থাকা সত্তেও দেখলাম কেউ আমাকে কাজ দিচ্ছে না। একটা সময়ে চিন্তা করলাম যারা নতুন কোম্পানী শুরু করেছে তাদেরকে ফ্রি তে হোষ্টিং সার্ভিস দেব এবং ফ্রি তে ওয়ার্ডপ্রেস থীম দিয়ে ওয়েবসাইট ডেভলাপ করে দেব। টার্গেট ছিল ১০০ জনকে নিয়ে একটি নেটওয়ার্ক গড়ব। পরিধী বেড়ে যা প্রায় ৩ শত জনে ছড়ায়।

তাদের ফ্রি তে হোষ্টিং দিলাম। ধীরে ধীরে তাদের বুঝালাম যে, ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ফ্রি থীম দিয়ে তাদের সাইট ডেভলাপ করায় ওয়েবসাইট স্লো এবং স্পামিং হচ্ছে। তাছাড়া তাদের নতুন নতুন কাষ্টম পি.এইচ.পি এর ডিজাইন করা আমার থীম গুলো দেখালাম। দৃষ্টিনন্দন থীম এবং নিজস্ব এডমিন প্যানেল থেকে সাইট মেন্টেইন করার মজা তারা বুঝতে বেশী সময় লাগে নি।

১ বছর পর প্রায় ২০% ক্লায়েন্টকে প্রিমিয়াম হোষ্টিং সেবা দিতে শুরু করলাম এবং প্রায় ৫% কে প্রিমিয়াম ওয়েব ডেভলাপিং সেবা দিতে পেরেছি। সেটা ছিল আমার ২০১২ সালের কথা। এখনো আমি ফ্রি তে হোষ্টিং এবং ওয়েব ডেভলাপিং সেবা দেই। অনেকেই আমাকে ফেইসুবকে বলেন, আমি ফ্রি তে দিচ্ছি বলে আমার কোন মান ইজ্জ্বত না কি নেই। আমি তাদের বলি সব কিছুই হচ্ছে বিজনেস ট্রিকস। আপনি সেটা না বুঝলে কিভাবে ঠিকে থাকবেন। ফ্রি সেবা আর প্রিমিয়াম সেবা কি কখনো একরকম হয়। ফ্রি তে সেবা দিয়ে ক্লায়েন্টের সাথে একটা ভালো সম্পর্ক গড়া সম্ভব হয়। যা পরবর্তীতে প্রিমিয়াম সেবা দেয়ার সুযোগ বাড়ায়। তাছাড়া গুগল, আমাজন, আলী বাবার মতো কোম্পানী যখন ফ্রি তে হোষ্টিং সেবা দেয় তখন আপনারা তাদের মান ইজ্জ্বত নিয়ে কিছু বলেন না কেন? 

অনেক ওয়েব সাইটেই দেখবেন, প্রায় ৯৫% ক্ষেত্রে কোম্পানীগুলো তাদের সার্ভিস প্রথমে কিছু অংশ বা কিছু দিনের জন্য ফ্রি তে ব্যবহারের সুযোগ করে দেয়। এটা বিজনেসে মার্কেটিংয়ের অংশ। মার্কেটারদের টাকা দিয়ে মার্কেটিং করানো আর ফ্রি তে কিছু অংশ সেবা দেয়াও মার্কেটিং।

ফ্রিলেন্স মার্কেটপ্লেসে দেখবেন, অনেক কোম্পানী কম খরচে তাদের কাজ করাতে চাচ্ছে। নতুনরা এটাকে সুযোগ হিসেবে দেখতে পারেন। তার মানে এটা নয় যে, আপনি সর্বদা কম মূল্যে কাজ করে দেবেন। কোন কাজটি আপনি ভালো রেট চাইবেন আর কোনটিতে আপনি অল্প রেট চাইবেন সেটা আপনাকে বুঝতে হবে।

একটা গ্রামের নতুন একটি স্কুলের ওয়েবসাইট ডেভলাপ করতে আপনি ৩ হাজার টাকা নিতে পারেন। তাই বলে একটা ক্যান্টনমেন্ট স্কুলের ওয়েবসাইটে ৩ হাজার টাকা চাইবেন না। দুইটাই স্কুলের ওয়েব সাইট। টাকার পরিমাণ মতো কাজের মান অবশ্যই বাড়াতে হবে। কোন কোম্পানী কি বাজেটে কি সেবা দিতে হবে সেটাও বুঝতে হবে।

প্রিয় ফ্রিলেন্সার। নিজেকে বিশ্বাস করুন। দক্ষতা বাড়ান। প্রতিযোগীতার মানষিকতা নিয়ে এগিয়ে চলুন। আপনার এগিয়ে যাওয়া কেউ থামাতে পারবে না। আগামী পর্বে আবারও দেখা হবে ইনশাল্লাহ্।

My Facebook Id- http://www.facebook.com/obaydul.shipon

টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো