Quantcast

SSC উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং [পর্ব-০২] :: সিভিল ও আর্কিটেকচার টেকনোলজি

0 0 0 0 0
1 টিউমেন্টস 1,638 দেখা প্রিয়
স্পন্সরড টিউন

এটি একটি Sponsored টিউন। এই Sponsored টিউনটির নিবেদন করছে 'SAIC Group'
'Sponsored টিউন by Techtunes tAds | টেকটিউনস এ বিজ্ঞাপন দিতে ক্লিক করুন এখানে

ডিপার্টমেন্ট অব সিভিল টেকনোলজি

পৃথিবীতে উন্নত রাষ্ট্রগুলো ক্রমেই উন্নত হচ্ছে এবং উন্নয়নশীল রাষ্ট্রগুলো উন্নতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। রাষ্ট্র উন্নয়ন বলতে বুঝায় সে দেশের অর্থনৈতিক অবকাঠামো, যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং ইমারত গুলোর উন্নয়ন। ভূ-খন্ড নির্দিষ্ট কিন্তু জনসংখ্যা অপরিকল্পিতভাবে ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং ভবিষ্যতেও বৃদ্ধি পেতে থাকবে।

এই নির্দিষ্ট ভূ-খন্ডে জন-জীবনের জন্য মৌলিক চাহিদাগুলো যেমন: খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ইত্যাদির চাহিদা ক্রমশঃ বৃদ্ধি পাচ্ছে। একই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে বেকারত্ব।

তাই মৌলিক চাহিদা পূরণের সাথে সাথে বেকারত্ব দূরীকরণের ব্যবস্থাও গ্রহণ করতে হবে। সুনিয়ন্ত্রিত ও সুপরিকল্পিতভাবে নগর বাস্তবায়ন, বহুতল ভবন, উন্নত সড়ক পথ, রেলপথ, ব্রীজ, কালভার্ট, বিমানবন্দর ইত্যাদি নির্মাণে Civil Technology এর কোন বিকল্প নেই।

সিভিল টেকনোলজি পড়তে প্রয়োজনীয় ল্যাব সমূহ:

  • Drawing Lab (45 Drawing Table)
  • Survey Lab
  • Sheet Metal Lab
  • Engineering materials Testing Lab
  • Hydraulics Lab
  • Wood Shop
  • Computer Lab
  • Physics & Chemistry Lab
  • Construction workshop
  • Transportation Lab
  • Geotechnical Lab

চাকরির ক্ষেত্র সমূহ:

  • দেশের বৃহত্তর সরকারি প্রতিষ্ঠান যেমন: Roads and Highway Department (RHD), Public works Department (PWD), Public Health Engineering Department (PHED), LGED ইত্যাদিতে Sub Assistant Engineer পদে চাকরির সুযোগ রয়েছে। RAJUK, Bangladesh Railway.
  • দেশের বৃহত্তর অন্যান্য সরকারি নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিষ্ঠান যেমন: Water Development Board (WDB), Power Development Board (PDB), DESCO, DPDC, PGCB, WASA, City Corporation ইত্যাদিতে Sub Assistant Engineer পদে চাকরির সুযোগ রয়েছে। Telecomunication section, Ministry of Defense, BIWTA, House Building Finance Corporation বাংলাদেশ ইস্পাত প্রকৌশল করপোরেশন।
  • দেশের পৌরসভাগুলোতে Sub Assistant Engineer হিসেবে কর্মক্ষেত্র রয়েছে।
  • দেশের বিভিন্ন Real estate and Developer company Sector গুলোতে Sub assistant Engineer, Deputy Project Engineer, Project Engineer, Project In charge হিসেবে কর্মক্ষেত্র রয়েছে।
  • সরকারি ও বেসরকারি পলিটেকনিক গুলোতে জুনিয়র ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে অসংখ্য চাকরির সুযোগ রয়েছে।
  • নিজস্ব Consultant farm সৃষ্টির মাধ্যমে সে নিজের ও অন্যের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারে।

 

উচ্চ শিক্ষার সুযোগঃ

  • B.Sc In Civil Engineering
  • B.Sc In Architecture Engineering
  • Water Resources Engineering
  • B.Sc in Urban and Regional Planning
  • B. Sc in Environmental Engineering

ডিপ্লোমা ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং -এ পাশ করার পর সরকারি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে এবং দেশের বিভিন্ন প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে সরাসরি দ্বিতীয় বর্ষে পড়ার সুযোগ রয়েছে।

  • 1. DUET
  • 2. AMIE, IEB, Dhaka

এছাড়া দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ রয়েছে।

ডিপার্টমেন্ট অব আর্কিটেকচার টেকনোলজি

আর্কিটেকচার এর বাংলা প্রতিশব্দ স্থাপত্যবিদ্যা। সাধারণত স্থাপত্য বলতে আমরা নির্মাণ কৌশলকেই বুঝি। আধুনিক যুগে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নতির সাথে সাথে স্থাপণা শিল্পেও এসেছে নতুনত্ব। আর্কিটেকচারে এই উন্নয়নকে কাজে লাগিয়ে তৈরি করা হচ্ছে আরামদায়ক গ্রহণযোগ্য শিল্পমন্ডিত ও রুচিসম্মত সুন্দর স্থাপনা। স্থাপত্যবিদ্যা মূলত ডিজাইন ও কৌশলকে প্রাধান্য দেওয়ায় এর জন্য প্রয়োজন প্রচুর উদ্ভাবনী শক্তি আর এই ডিজাইন ও সৌন্দর্যকে পুঁজি করে শহর বন্দর গ্রামকে আরও সুন্দর করে উপস্থাপন করাই স্থাপত্যবিদ্যার মূল উদ্দেশ্য।

বিশ্বের দরবারে স্থায়িত্ব ও সৌন্দর্য্য যেখানে একত্রে মিলিত হয় সেখানে একটি টেকসই সৌন্দর্য্যরে বিকাশ ঘটে। বিশ্বের দরবারে যেসকল স্থাপত্য মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে আছে, যেমন- আইফেল টাওয়ার, তাজমহল, রোমের স্থাপত্য, চীনের প্রাচীর, ব্যাবিলনের শূন্য উদ্যান-এ গুলো শুধু দীর্ঘস্থায়ী তাই নয় বরং তাদের সৌন্দর্য ও ডিজাইন সারা বিশ্বকে মুগ্ধ করেছে। এছাড়া প্রতিনিয়ত আর্কিটেকচার সমস্ত পৃথিবীতে প্রসার লাভ করছে। কেবল মাত্র আর্কিটেকচার টেকনোলজিতে পড়লেই নিজের কর্মসংস্থান নিজেই তৈরি করা সম্ভব।

আর্কিটেকচার টেকনোলজিতে পড়তে প্রয়োজনীয় ল্যাবসমূহ:

  • Drawing Lab
  • Survey Lab
  • Computer lab
  • Drafting Lab
  • Model Making Lab
  • Physics & Chemistry Lab

কর্মসংস্থানঃ

  • নগর ভবনে শহরের সৌন্দর্য বর্ধনে Architect দের প্রচুর চাহিদা রয়েছে।
  • বিভিন্ন Architecture এবং Construction Farms -এ Architect হিসেবে প্রচুর চাকরির সুযোগ রয়েছে।
  • শহরকে পরিকল্পনা মাফিক সাজাতে Town Planning Agencies -এ প্রচুর কর্মক্ষেত্র আছে।
  • নিজস্ব Consultation Farm গড়ে তোলার ক্ষেত্রে এদের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে।
  • বর্তমানে দেশে বিভিন্ন Housing Company, Real Estate Company -তে সহকারী Architect হিসেবে প্রচুর কর্মক্ষেত্র রয়েছে।
  • এছাড়া সরকারি বিভিন্ন সেক্টর এ প্রচুর Assistant Architect নেওয়া হয়।
  • সরকারি এবং বেসরকারি পলিটেকনিক গুলোতে Junior Architect হিসেবে চাকরি পেতে পারে।

উচ্চ শিক্ষাঃ

  • Diploma Architecture পাশ করার পর B.Sc in Civil Engineering
  • B.Sc in Architecture Engineering

এটি একটি Sponsored টিউন। এই Sponsored টিউনটির নিবেদন করছে 'SAIC Group'
'Sponsored টিউন by Techtunes tAds | টেকটিউনস এ বিজ্ঞাপন দিতে ক্লিক করুন এখানে

টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

Proud to be a student of SIMT

You must be logged in to post a Tumment.