Quantcast

আপনি কি ওয়ার্ডপ্রেসের MUST-USE প্লাগিন সম্পর্কে জানেন? না জানলে জেনে নিন এখনই

0 টিউমেন্টস 361 দেখা প্রিয়
ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইনস

আস সালামু আলাইকুম, আশা করি ভাল আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমিও ভাল। তবে শরীর ও মন দুইটাই মনে হয় অসুস্থ। শুধু আমি আর আমার মনোবলটাই মনে হয় সুস্থ আছে। তাই তো আপনাদের মাঝে চলে এসেছি এমন পরিস্থিতিতেও। যাইহোক, এটা শুধু আপনাদেরকে আর প্রযুক্তিকে ভালবাসি বলেই। অনেক দিন হয়ে গেছে সকালের সূর্যদোয় দেখি না। সবার ঘুম ভাংগে সকালের সূর্যের আলোয়। আর আমার ঘুম ভাংগে কম্পিউটার এর স্ক্রিনের আলোয়। মাঝে মাঝে সকালের সূর্য দেখতে ইচ্ছে করে কিন্তু সূর্য উদয়ের আগে ঘুম থেকে উঠলেও সেটা আর দেখা সম্ভব হয় না।আসলে কম্পিউটারকে হয়ত এর থেকেও বেশি ভালবাসি...

আচ্ছা  যাইহোক চলুন সরাসরি আজকের টপিক্স এ চলে যাই। ভুমিকা দিয়েই স্টার্ট করে দেই।

আমরা জানি, বর্তমানে পৃথিবীব্যাপী ওয়ার্ডপ্রেস একটি নাম্বার ওয়ান কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। কারণ ওয়ার্ডপ্রেস এর কোর  অসংখ্য ফাংশন, টুল এবং ইউটিলিটি দিয়ে গঠিত। যেগুলো খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি। ওয়ার্ডপ্রেস যেসকল ফিচারের জন্য বিখ্যাত সেগুলো হল, কাস্টম টিউন টাইপ্স, অ্যাকশন, ফিল্টার হুক্স এবং এর ভিজুয়্যাল এডিটোর এর জন্য। কিন্তু এমন একটি জনপ্রিয় প্লাগিন্স আছে যেটা খুব কম লোকই জানে। তো আজ আমি সেই কম জানা ফিচার অর্থাৎ ওয়ার্ডপ্রেস Must use plugin নিয়েই আলোচনা করবো।

আসলে must use প্লাগিন কি?

এটা অস্বাভাবিক কিছু নয় যে, must use plugin ফিচারটি চাইলে আপনি বর্জন করতে পারেন। তবে আপনি অনেক কিছু থেকে বঞ্চিত হবেন। যখন ওয়ার্ডপ্রেস মাল্টি ইউজার সিস্টেম চালু করা হয় তখন ওয়ার্ডপ্রেস ৩.০ পর্যন্ত ভার্শনগুলোতে এই ওয়ার্ডপ্রেস মাল্টিইউজার সিস্টেম ইন্টিগ্রেট হতো না। কিন্তু এর পরবর্তী ভার্শনগুলোতে mu-plugins নামক একটি ফোল্ডার করা হয় যা নেটওয়ার্ক এডমিনকে তার প্রতিটি ব্লগে এটি এক্টিভেট করার সুযোগ দেয়। যখন ওয়ার্ডপ্রেস ৩.0 মার্জ করা হয় তখন একটি ডিরেক্টরি রাখা হয় mu-plugins যেটার ব্যাখ্যা করা হয় must use প্লাগিন নামে। অর্থাৎ mu-plugin directory তে যেই প্লাগিন্স গুলো থাকবে সেগুলোকে must use plugin বলা হচ্ছে।

আসুন জেনে নিই Must-use Plugin এর প্রধান ফিচারগুলো

এই প্লাগিনের সুবিধা এবং অল্প কিছু অসুবিধা আছে। আসুন জেনে নিই must use প্লাগিনের সুবিধা এবং অসুবিধাগুলোঃ

এটি সব সময় অন থাকে

এটা অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত হবে এবং  এটা আপনার ওয়েবসাইটে অটোমেটিক লোড হবে।

আপনি তাদের ডিজেবল করতে পারবেন না 

আপনি যদি এডমিনিস্ট্রেটর হন তাহলে আপনি ডাশবোর্ডের প্লাগিন থেকে এটাকে ডিএক্টীভ বা ডিলিট করতে পারবেন না। তবে আপনি চাইলে আপনার ফাইল ম্যানেজারে ঢুকে mu-plugins ডিরেক্টরীতে গিয়ে আপনি ডিলিট করতে পারবেন যেটা wp-content ফোল্ডারে ঢুকলেই দেখতে পারবেন। আর সেখানে নতুন কোনো প্লাগিন ইনস্টল করতে পারবেন না, ঠিক আগে যেভাবে করতেন। তবে  আপনি যদি নতুন প্লাগিন ইনস্টল করতে চান must use plugins হিসেবে  তাহলে প্লাগিন্স mu-plugins ডিরেক্টরিতে গিয়ে আপনাকে প্লাগিন আপ্লোড করতে হবে।

এগুলো সাধারণ প্লাগিনের পূর্বে লোড হয় 

এগুলো আপনার plugins ফোল্ডারে থাকা প্লাগিনগুলোর পূর্বেই লোড হয়ে যায়। তবে সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো must-use প্লাগিনগুলো বর্ণমালা অনুযায়ী লোড হয়। মানে লোড হওয়ার ক্রম টা বর্ণমালা অনুযায়ী হয়। যেমন, a নামের কোনো প্লাগিন থাকলে সেটা b এর আগে লোড হবে।

আপনি এই প্লাগিনগুলোর জন্য কোনো এক্টিভেশন বা ডিএক্টিভেশন হুক ব্যবহার করতে পারবেন না 

আপনারা আগেই জানেন যে, must use প্লাগিন গুলো অটোমেটিক এক্টিভেট হয়। আপনি তাদেরকে ডিএক্টিভেট বা আনইন্সটল করতে পারবেন না। অথবা তাদের জন্য কোনো এক্টিভেশন বা ডিএক্টীভেশন হুকও ব্যবহার করতে পারবেন না

প্লাগিনগুলো আপডেট নেয় না 

mu-plugins ডিরেক্টরিতে থাকা প্লাগিনগুলো অটোমেটিক আপডেট নিতে পারে না। এমনি কি নতুন ভার্শন আসলেও ওয়ার্ডপ্রেস আপনাকে কোনো ওয়ার্নিং দিবে না।  তবে যদি আপনি আপডেট করতে চান তাহলে আপনাকে ম্যানুয়ালি আপডেট করতে হবে।

তো চলুন এই mu-plugins ডিরেক্টোরি আমরা কোন কোন ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারি সে বিষয়ে একটূ ধারণা নেয়া যাক 

যারা একটু বুদ্ধিমান এবং সৃজনশীল মানুষ তারাই সাধারণত এই ডিরেক্টরি ব্যবহার করে থাকে সময় বাঁচানোর জন্য। আমি আপনাদের সাথে কয়েকটি আইডিয়া তুলে ধরতেছি বাকিগুলো আপনারা খুঁজে বের করে নিয়েন। তো চলুন একটু দেখি কোথায় ব্যবহার করতে পারিঃ

আপনার মাল্টিসাইট নেটওয়ার্কে must-use প্লাগিন ব্যবহার করতে পারেন 

আপনি যদি মাল্টিসাইট ওয়েবসাইট বা নেটওয়ার্ক এক্টীভেশন ফিচার ব্যবহার করেন তাহলে আপনার এক্সট্রা কিছু পাওয়ার এর জন্য আপনি must-use plugin ডিরেক্টরি ব্যবহার করতে পারেন। নেটওয়ার্ক এক্টিভেটে প্লাগিন আর must-use plugins এর অনেক পার্থক্য আছে সেটা আমি এখানে আলোচনা করতে চাই না সেটা একটু সার্চ করে জেনে নিন।

আপনার ক্লায়েন্টের ওয়েবসাইটে must-use plugins ব্যবহার করুন 

আপনার ক্লায়েন্ট কে যদি আপনি তার ওয়েবসাইটের এডমিনিস্ট্রেটর এক্সেস দেন তাহলে অবশ্যই আপনার ক্লায়েন্ট ওয়েবসাইটের সেটিংস থিমস অপশন, প্লাগিন্স, এবং আরও যে পেইজে এক্সেস করতে পারে সব জায়গায় গিয়ে সেগুলো উলোটপালট করতে পারে সেগুলো বুঝার জন্য। আর এতে সে কিছু প্লাগিনকে অপ্রয়োজনীয় মনে করে ডিলিটও করে দিতে পারে। পরে আপনাকে ফেলবে বিপদে। অনেক সময় এমন কাজ করে বসে যে, সেটা আপনার সমাধান করতে গেলে আপয়ার ১২টা বেজে যাবে। আপনার সময় নষ্ট হবে অনেক। তাই আপনি যদি গুরুত্বপূর্ণ প্লাগিনগুলো mu-plugins ডিরেক্টরিতে নিয়ে রাখেন এবং সেগুলোর জন্য একটা পিএইচপি ফাইল ক্রিয়েট করে রাখেন তাহলে হয়ত আপনি এই সমস্যায় পরবেন না।

আপনি আপনার সাইটের গুরুত্বপূর্ণ প্লাগিনগুলোর জন্য must-use plugins ব্যবহার করতে পারেন।

আপনার ওয়েবসাইটে অনেক গুরুত্বপূর্ণ প্লাগিন থাকতে পারে যেগুলো ডিএক্টিভ বা ডিলিট করলে আপনার ওয়েবসাইটের সমস্যা হতে পারে। তাই ভুল করেও যেন সেই প্লাগিনগুলো কোথাও ক্লিক লেগে ডিএক্টিভ বা ডিলিট না হয়ে যায় সেজন্য আপনি mu-plugins ডিরেক্টরি ব্যবহার করতে পারেন।

যাই হোক এই টিউনে আমি এসেছি শুধু mu-plugins এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে। কিন্তু সেগুলো কিভাবে ব্যবহার করবেন সেগুলো একটু কষ্ট করে জেনে নিন।

আশা করি এই টিউন টি পড়ে সামান্য হলেও উপকৃত হতে পেরেছেন। যদি সামানও ভাল লেগে থাকে আমার এই টিউন তাহলে অবশ্যই টিউমেন্ট এবং টিউন টি শেয়ার করার অনুরোধ রইলো।

আজকের মত বিদায়, ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন,প্রযুক্তিকে ভালবাসুন আর প্রযুক্তির সাথেই থাকুন।

আল্লাহ হাফিজ

ফেসবুকে আমি 

আমি একজন প্রযুক্তি প্রেমী।কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এ লেখাপড়া করছি।পৃথিবীকে নতুন কিছু করে দেখাতে চাই।

টিউনার সৌশল মিডিয়া
Ads by Techtunes - tAds
টিউমেন্টস টিউমেন্ট গুলো

You must be logged in to post a Tumment.